সাপাহারে ৪ দিনের ব্যবধানে আবারো গৃহবধুর আত্মহত্যা

আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০২২, ১০:৪৮ অপরাহ্ণ

সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি:


নওগাঁর সাপাহারে চার দিনের ব্যবধানে আবারো জলি আক্তার (১৭) নামের এক গৃহবধু গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গৃহবধু জলি সাপাহার উপজেলার কাশিতাড়া গ্রামের মোজাফ্ফর রহমানের ছেলে সুমন এর স্ত্রী বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার বিকেলে গৃহবধু জলি সবার অজান্তে নিজ শয়নঘরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। বেশ কিছুক্ষন গৃহবধুর অনুুপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ীর লোকজন খোঁজাখুজি করে তার শয়ন ঘরে তার ঝুলন্ত মরাদেহ দেখতে পেয়ে হৈচৈ শুরু করলে পাড়ার লোকজন এসে ফাঁস হতে তাকে নামিয়ে হাসপালে নেয়ার চেষ্ট করে কিন্ত ততক্ষনে তার মৃত্যু হওয়ায় তাকে হাসপাতালে না এনে স্থানীয় থানায় সংবাদটি জানালে সন্ধ্যায় পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে ওই গৃহবধুর মরাদেহ উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নেয়। এর পর রাতে থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করা হয় এবং পরদিন শনিবার সকালে গৃহবধুর মরাদেহটি ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয় বলে ওসি হুমায়ুন কবির জানান।

গৃহবধু জলি আক্তার সাপাহার উপজেলার মরাডাঙ্গা গ্রামের জুয়েল হকএর মেয়ে ১১মাস পূর্বে কাশিতাড়া গ্রামের সুমন এর সাথে তার বিয়ে হয়েছিল বলে তার পিতার পারিবাকি সূত্রে জানা গেছে। রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত গৃহবধুর আত্মহত্যার কোন কারণ জানা যায়নি তবে ময়না তদন্তের পর সঠিক কারণ জানা যাবে বলে পুলিশ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য যে, গত ৩০নভেম্বর সাপাহার উপজেলার নুরপু পূবপাড়ার শরিফুল ইসলামের মেয়ে দিলরুবা (৩৫) নামের এক গৃহবধু গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছিল।