সাপের কামড়ে অসুস্থ কিশোরীকে নেরয়া হল ওঝার কাছে! মৃত্যুর পর দেহ ভাসিয়ে দেয়া হল কলার ভেলায়

আপডেট: জুন ১৪, ২০২৪, ৫:১০ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


সাপের কামড়ে গুরুতর অসুস্থ এক কিশোরীকে চিকিৎসকের পরিবর্তে নিয়ে যাওয়া হয় ওঝার কাছে। কিশোরীর মৃত্যুর পর দেহ কলার ভেলায় ভাগীরথী নদীতে জলে ভাসিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠল মৃতার পরিবারের বিরুদ্ধে। দু’দিন আগের ঘটনা হলেও বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) ওই কিশোরীকে কলার ভেলা করে ভাসিয়ে দেয়ার একটি ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পর শোরগোল পড়ে গেছে জেলা জুড়ে। যদিও ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি আজকাল ডট ইন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার মুর্শিদাবাদের সুতি থানার হারুয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের কানাইঘাট এলাকার বাসিন্দা তথা স্থানীয় ভেলিয়ান মাধ্যমিক শিক্ষাকেন্দ্রের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী কবিতা মণ্ডল (১১) বন্ধুদের সঙ্গে খেলা শেষে সন্ধেয় বাড়ি ফিরছিল। গ্রামের পথ ধরে ফেরার পথে বিষধর সাপ তাঁকে কামড়ায়।

কবিতা দ্রুত বাড়ি ফিরে এসে পরিবারের লোকদের গোটা ঘটনাটি জানায়। পরিবারের সদস্যরা কুসংসস্কারবশত কবিতাকে কোনো চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়ার পরিবর্তে স্থানীয় এক ওঝার কাছে নিয়ে যায়।

তবে ওঝার কাছে পৌঁছনোর আগেই বিষের প্রভাবে প্রায় নেতিয়ে পড়ে কবিতা। অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে ওঝা কিছুক্ষণ চিকিৎসা করার পরই পরিবারের লোকেদের জানিয়ে দেন কিশোরীকে কোনো চিকিৎসক বা হাসপাতালে নিয়ে যেতে। কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই কবিতা মারা যায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এরপর কবিতার পরিবারের লোকেরা পুলিশ প্রশাসন বা কাউকে খবর না দিয়ে দেহটি কলার ভেলাতে করে ভাসিয়ে দেয়। এদিকে, গোটা বিষয়টি নিয়ে হইচই শুরু হওয়ার পর অস্বস্তিতে পড়েছে মৃত কবিতার আত্মীয়রা। প্রশাসনের কাছে পরিবারের অনুরোধ, কবিতার দেহের সন্ধান পেলে তা যেন ফিরিয়ে দেওয়া হয়।
তথ্যসূত্র: আজকাল অনলাইন

 

 

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ