সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশ-ভারত যৌথ চ্যাম্পিয়ন!

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৪, ১১:২৬ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:শীতের রাতে রুদ্ধশ্বাস অপেক্ষা। গ্যালারিতে তখনও বেশ কিছু দর্শক অপেক্ষায়। অবিশ্বাস্য এক ম্যাচের পরিসমাপ্তি হলো সাড়ে চার ঘণ্টারও পর। অনেক নাটকের পর মঞ্চ সাজিয়ে অবশেষে ঘোষণা করা হলো সাফ অনূর্ধ্ব-১৯ নারী চ্যাম্পিয়নশিপে যৌথ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ ও ভারত!

বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ মানেই যে বাড়তি নাটকীয়তা এটা এখন সর্বত্র প্রতিষ্ঠিত! পরতে পরতে জমে ছিল নাটক। ফাইনালে নির্ধারিত সময়ে খেলা ১-১ গোলে ড্রয়ের পর সরাসরি টাইব্রেকারে গেছে খেলা। সেখানেও ১১টি শটে দুই দল ১১টি করে গোল দিয়েছে। হঠাৎ সে সময় ম্যাচ কমিশনার শ্রীলঙ্কার ডি সিলভা সাডেন ডেথের শট বন্ধ করে টসে ভাগ্যে ফল নিষ্পত্তির ঘোষণা দেন। সেখানে বাংলাদেশকে হারিয়ে ভারত চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল।

কিন্তু নিয়ম অনুযায়ী সেটা হওয়ার কথা ছিল না। ফলে স্বাগতিকরা সেটি মানতে চায়নি। প্রতিবাদের মুখে অনেকক্ষণ পর নিজের ভুল বুঝতে পেরে ভারতকে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করা হয়। কিন্তু এবার বেঁকে বসে ভারত। তারা তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ জানিয়ে মাঠ ছেড়ে চলেও যায়।

আধঘণ্টা সময় বেঁধে দেওয়া হলেও সময় গড়ায় এক ঘণ্টার বেশি! এরপরও ম্যাচ কমিশনার কিছু জানাতে পারছিলেন না। তখন ড্রেসিংরুমে ভারতকে বলে কয়ে ম্যাচে ফেরার প্রাণান্তকর চেষ্টা চলে। কিন্তু কোনও কিছুতেই সফল হওয়া যায়নি। শেষ পর্যন্ত রাত ১০ টা ৪১ মিনিটে মঞ্চ হতে ঘোষণা দেওয়া হয় বাংলাদেশ-ভারত যৌথ চ্যাম্পিয়ন! এটা আঁচ করতে পেরে আগেই এক পশলা উৎসব সেরে নিয়েছে সাগরিকা-রুমারা। অথচ নির্ধারিত সময়ে খেলা যেভাবে এগিয়েছে সেখানে বাংলাদেশের পরাজয়ের শঙ্কা উঁকি দিচ্ছিল।

৮ মিনিটে প্রথম গোল হজম করে বসেছিল বাংলাদেশ। পরে যোগ হওয়া সময়ে সাগরিকার নাটকীয় এক গোলে বাংলাদেশ সমতা ফিরিয়েছে। তার পর টুর্নামেন্টের নিয়ম অনুযায়ী রূদ্ধশ্বাস টাইব্রেকার। নিয়ম অনুযায়ী ১১টি টাইব্রেকারেই স্কোর ছিল ১১-১১। – বাংলা ট্রিবিউন