সাব ন্যাশনাল ইয়ুথ সামিট তারুণ্যের বুদ্ধিদীপ্ত চেতনা বিকাশিত হোক

আপডেট: মে ২৭, ২০২২, ১২:১১ পূর্বাহ্ণ

একটি দেশের উন্নয়নে তারুণ্যের শক্তি, তারুণ্যের চেতনা, মেধা ও মননের সুসংগঠিত প্রয়াস একান্তই প্রয়োজন। সমাজে তরুণ ও যুব সমাজের ইতিবাচক ভূমিকা না থাকলে সে সমাজ পিছিয়ে থাকে। বর্তমান সময়ে মেধা ও মননের সঠিক বিকাশের পথে বাঁধ সাধছে হতাশা। নানা কারণ থেকে জন্ম নেয়া হতাশা যুব সমাজকে বিপথে ধাবিত করছে। কেউ মাদকের দিকে ঝুঁকছেন। আবার কেউ আত্মহত্যার পথ বেঁছে নিচ্ছেন, অপরাধমূলক কর্মকান্ডে নিজেদের সম্পৃক্ত করছে। এক ধরনের সামাজিক অবক্ষয় সমাজ ব্যবস্থায় বিষফোঁড়ার মতো জেগে উঠছে। তারুণ্যের মাঝে জেগে উঠা বিষফোঁড়ার আগ্রযাত্রা রোধ করতে যুবপোযোগী সামাজিক পদক্ষেপ নিতে হবে।
বুধবার (২৫ মে) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে তরুণদের নিয়ে সাব ন্যাশনাল ইয়ুথ সামিট করেছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা রূপান্তর পিস কনসোর্টিয়াম ও বরেন্দ্র উন্নয়ন। যেখানে তরুণদের দিক-নিদের্শনামূলক বক্তব্য দিতে গিয়ে যুব ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মেসবাহ উদ্দিন বলেন, বর্তমান সময়ে মাদকের করাল গ্রাসে ধ্বংস হচ্ছে যুবসমাজ। অথচ আজকের তরুণ যুবক সমাজ আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তবে এই তরুণ বয়সে আবেগের বসভূতি হয়ে ভুল পথে পরিচালিত হওয়ার সম্ভাবনা খুবই বেশি থাকে। তাই এসময়ে যেকোন বিষয়ে যাচাই বাছাই করে সিদ্ধান্ত নিয়ে জীবন পরিচালনা করতে হবে। কোন কিছু করার আগে তা ভেবে-চিন্তে করার পাশাপাশি সেটার অবশ্যই সত্যতা নিশ্চিত করে পদক্ষেপ নেয়ার পরামর্শ দেন তিনি। এছাড়া এ ধরনের প্রোগ্রামের প্রশংসা করে তা যুবকদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে উৎসাহ প্রদান করেন।
শান্তি-সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় যুবদের সম্পৃক্ত করে এমন সামাজিক প্রোগ্রামগুলো ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। তারুণ্যের ভাবনার মিলন ঘটে এমন কর্মসূচিগুলোর সম্প্রসারণ যুব অপরাধকে রুখে দিতে পারে। বুদ্ধিদীপ্ত ইতিবাচক চিন্তার বিকাশে সুস্থ সংস্কৃতি চর্চার পথকে উন্মুক্ত করতে হবে। তারুণ্যের শক্তিকে সঠিক পন্থায় সন্ত্রাস-সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সোচ্চার রাখতে হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ