জমে উঠেছে রাণীনগরের সায়েস্তা খানের কালেকশনে ইদ বাজার

আপডেট: মার্চ ২৯, ২০২৪, ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ


আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি:নওগাঁর রাণীনগরে সবার জন্য ইদ আনন্দ নিশ্চিতকরণে বিগবাজার মার্কেটে নিম্ন আয়ের মানুষদের জন্য চালু করা সায়েস্তা খানের কালেকশনে ইদ বাজার জমে উঠেছে। নিম্ন আয়ের সকল শ্রেণিপেশার মানুষের জন্য নতুন পোশাক নিশ্চিত করে ইদের আনন্দ উপভোগ করতে উপজেলার রাণীনগর বাজারের বিজয়ের মোড়ে অবস্থিত বিগ বাজার মার্কেটের কর্তৃপক্ষের এমন ব্যতিক্রমি উদ্যোগ এলাকায় ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

সায়েস্তা খানের কালেকশন চালুর প্রসঙ্গে বিগবাজার মার্কেটের মালিক মোখলেছুর রহমান জানান বড়দের পাশাপাশি ছোট বাচ্চাদের কাছে ইদ মানেই একটি নতুন পোশাক। ইদের বাজার আর কিছু হলো কিনা সেটি বড় বিষয় নয় বড় বিষয় হচ্ছে ইদে অবশ্যই একটি নতুন পোশাক চাই। পাশাপাশি অন্যকিছু। আমরা বই-পুস্তকের মাধ্যমে ইতিহাস থেকে জেনেছি যে সায়েস্তা খানের শাসনামলে বাংলায় এক টাকায় আট মণ ধান পাওয়া যেতো। সেই সময়ে অল্প টাকার বিনিময়ে মানুষ অনেক পণ্য পেয়েছে।

সায়েস্তা খানের কালেকশনে কিন্তু বর্তমান সময়ের উর্দ্ধগতির বাজারে জীবন ধারণ করতে গিয়ে বিশেষ করে নিম্ন আয়ের মানুষদের চরম ভাবে হিমশিম খেতে হচ্ছে। বাজারে গিয়ে অতি প্রয়োজনীয় কিছু পণ্য কিনতেই পকেট ফাঁকা যাচ্ছে। এমতাবস্থায় ঈদে বিভিন্ন পেশাজীবী নিম্ন আয়ের খেটে-খাওয়া, ছিন্নমূল, গরীব, হতদরিদ্র ও অসহায় মানুষ ও তাদের সন্তানরা কি তাহলে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান ঈদে অর্থ সংকটে একটি নতুন পোশাক কেনার অভাবে ইদের আনন্দ উপভোগ করতে পারবে না। আমি ও আমার পরিবারের সদস্যরা নতুন পোশাক পড়ে ইদে আনন্দ করবো আর পাশের বাড়ির নিম্ন আয়ের ব্যক্তির সন্তান একটি নতুন পোষাকের অভাবে ইদে আনন্দ করতে পারবে না এটা হতে পারে না।

সায়েস্তা খানের কালেকশনে সেই বিষয়টিকে মাথায় রেখে রোযার প্রথম থেকে এই প্রথমবারের মতো দোকানে সায়েস্তা খানের কালেকশন নামের একটি কর্ণার চালু করেছি যেখানে যে কোন মানুষ তাদের সাধ্যের মধ্যে ছোট-বড় সকলের জন্য অন্তত একটি নতুন পোশাক কিনতে পারবেন। যার যেমন আর্থিক সামর্থ রয়েছে সেই সীমার মধ্যেই সায়েস্তা খানের কালেকশন থেকে নতুন পোশাক সংগ্রহ করা যাবে। এই কর্ণারে থাকা প্রতিটি পোশাকের কোন ধরাবাধা নির্ধারিত মূল্য নেই। সাধ্যের মধ্য থেকে আমি সকল শ্রেণিপেশার মানুষের মাঝে কমমূল্যে নতুন পোশাক দিয়ে ইদের আনন্দ উপভোগ করার বিষয়টি নিশ্চিত করতে চাই তাই এমন উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।

সায়েস্তা খানের কালেকশনে নিম্ন আয়ের ও খেটে খাওয়া মানুষদের পাশাপাশি মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্যরাও এই ক্যালেকশন থেকে স্বল্প মূল্যে নতুন পোশাক সংগ্রহ করছেন। ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। আগামীতেও আমার এই ধরনের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

স্থানীয় বাসিন্দা আখেরুজ্জামান উজ্জ্বল জানান এখনকার সময়ে যেখানে আমরা ইদে বেশি দামে পণ্য বিক্রি করে নিজেদের স্বার্থ আদায়ে ব্যস্ত সেখানে সায়েস্তা খানের কালেকশন সত্যিই একটি বিস্ময়কর উদ্যোগ। এমন উদ্যোগ যদি সমাজের বিত্তবানরা যার যার অবস্থান থেকে গ্রহণ করতো তাহলে হয়তো বা সায়েস্তা খানের শাসনামল আবার আমরা ফিরে পেতাম। আমি বিগ বাজার মার্কেটের এমন উদ্যোগের শতভাগ সফলতা কামনা করছি।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ