‘সারাবছর চাষ করা যায় পেঁয়াজের এমন জাত উদ্ভাবন করেছেন বিজ্ঞানীরা’

আপডেট: এপ্রিল ৭, ২০২২, ৭:২৩ অপরাহ্ণ

পেঁয়াজ বীজের মাঠ পরিদর্শনে কৃষিমন্ত্রী

সোনার দেশ ডেস্ক:


কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ‘আমরা পেঁয়াজ ও এর বীজ উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ হবো। সে লক্ষ্যে কৃষকের সঙ্গে সারা দেশব্যাপী কাজ করছে কৃষি বিভাগ। গ্রীষ্মকালসহ সারাবছর চাষ করা যায় এমন জাত উদ্ভাবন করেছে আমাদের কৃষি বিজ্ঞানীরা।’

বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) দুপুরে ফরিদপুর সদর উপজেলার অম্বিকাপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুরের সফল কৃষি উদ্যোক্তা একাধিক কৃষি পদকপ্রাপ্ত শাহীদা বেগমের পেঁয়াজ বীজ মাঠ পরিদর্শন কালে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘পেঁয়াজ অত্যন্ত পচনশীল মসলা জাতীয় ফসল। তবে এর ব্যাপক চাহিদা থাকায় দেশব্যাপী কৃষক পেঁয়াজের আবাদ করে। সমস্যা দেখা দেয় সংরক্ষণ নিয়ে। আলুর মতো কোল্ড স্টোরেজে এটি রাখা যায় না। এখন পর্যন্ত পেঁয়াজ সংরক্ষণের লাগসই কোনও প্রযুক্তি আমরা উদ্ভাবন করতে পারিনি। এ জন্য পেঁয়াজ চাষিদের সতর্ক হতে হবে।’

পেঁয়াজ আমদানির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘রমজানে পেঁয়াজের দাম যাতে লাগামহীন না হয় সে জন্য আমদানি খুলে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু দেখা গেলো দাম অনেক পড়ে গেছে, এতে আমাদের কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। কৃষি মন্ত্রণালয় উভয় সংকটে থাকে, কারণ আমরা কৃষকে বাঁচাতে চাইলে ক্রেতারা অখুশি হন আবার ক্রেতাকে খুশি করতে গেলে কৃষক দাম পায় না। কৃষক অনেক টাকা খরচ করে পেঁয়াজের বীজ ও পেঁয়াজ আবাদ করে।’

শাহীদা বেগমের উদাহরণ টেনে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘সারা দেশে এমন হাজারও শাহীদা বেগমকে এগিয়ে আসতে হবে। যারা ঝুঁকি নিয়ে এভাবেই দেশের কৃষিতে অবদান রাখবে। কৃষি উদ্যোক্তারা যাতে সহজ শর্তে ব্যাংক থেকে ঋণ পায় সেই ব্যবস্থা করছে সরকার। আমরা কৃষি উদ্যোক্তাদের পাশে দাঁড়াতে চাই। তাদের জন্য সরকারের সহযোগিতার হাত সর্বদাই প্রশস্ত রয়েছে।’
তথ্যসূত্র: বাংলাট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ