সালমান খানের বাড়িতে গুলিকান্ডে নয়া মোড়, অভিযুক্ত অনুজের পুলিশি হেফাজতেই আত্মহত্যা

আপডেট: মে ১, ২০২৪, ৬:৩০ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


১৪ এপ্রিল সালমান খানের বান্দ্রার ফ্ল্যাটে হামলা চালান বিষ্ণোই-গ্যাঙের সদস্যেরা। দু’টি গুলি প্রায় ফুটো করে দেয় সলমনের ফ্ল্যাটের বাইরের দেওয়াল। এই ঘটনায় যে দু’জন বন্দুকবাজদের অস্ত্র সরবরাহ করেন, তাঁরা হলেন সোনু বিষ্ণোই ও অনুজ থাপন। ঘটনার পাঁচ দিনের মাথায় এই দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে মুম্বই পুলিশ। মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) সকালে পুলিশি হেফাজতে থাকাকালীন আত্মহত্যার চেষ্টা করেন অনুজ। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন তাঁকে। মুম্বইয়ের সেন্ট জর্জ হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে অনুজের।

সালমানের ফ্ল্যাটে যে দু’জন গুলি চালিয়েছিলেন, তাঁরা সাগর পাল ও ভিকি গুপ্ত। ঘটনার দিন দুয়েকের মধ্যেই গুজরাটের ভূজ থেকে তাঁদের গ্রেফতার করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদেই উঠে আসে অস্ত্র চালানকারী সোনু ও অনুজের নাম। বন্দুকবাজদের বয়ান অনুযায়ী, দশ রাউন্ড গুলি চালানোর নির্দেশ পেয়েছিলেন তাঁরা। তার পরে সুরাতের তাপ্তী নদীতে বন্দুক ফেলে দেন তাঁরা। জানা গিয়েছে, এর মধ্যেই নদী থেকে একটি বন্দুক ও কিছু কার্তুজ উদ্ধার করেছে মুম্বই অপরাধ দমন শাখা।

গুলিকান্ডের পর থেকে কঠোর নিরাপত্তার ঘেরাটোপে রয়েছেন সালমান। সারা ক্ষণই ওয়াই ক্যাটেগরির নিরাপত্তার মধ্যে রয়েছেন তিনি। উদ্বেগে সালমানের পরিবার-সহ তাঁর অনুরাগীরাও। শোনা যাচ্ছে, ইতোমধ্যে নিজের বান্দ্রার ফ্ল্যাট ছেড়ে পানভেলের খামারবাড়িতে পাকাপাকি ভাবে থাকতে শুরু করেছেন তিনি।
তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার অনলাইন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ