সিংড়ায় পুকুর খননে থানায় মামলা গ্রেফতার ১

আপডেট: এপ্রিল ১৭, ২০২৪, ১১:২৪ অপরাহ্ণ

নাটোর প্রতিনিধি:


নাটোর সিংড়া পৌর এলাকার শৈলমারী মহল্লায় আবাদি জমিতে পুকুর খনন এবং বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) এর এলএলপি সেচ জীমের কয়েকশ ফুট ভূ-গর্ভস্থ সেচ নালা ও একটি আউটলেট ক্ষতিগ্রস্থ করার ঘটনায় এক্সকেভেটর (ভেকু) চালক সাইদুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার বেলা ১১টার দিকে ঘটনা স্থল থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত ওই ব্যাক্তি টাঙ্গাইল জেলা সদরের আলোক দিয়া গ্রামের বাসিন্দা মোন্নাফ আলী শেখের ছেলে। তার আগে গত মঙ্গলবার (১৭ এপ্রিল ) বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) এর সিংড়া জোন অফিসের সহকারী প্রকৌশলী মানিক রতন বাদী হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিগনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা যায়, সিংড়া পৌর এলাকার শৈলমারি মহল্লায় মৃত ইঞ্জিনিয়ার আবু সাঈদ এর প্রায় সাড়ে ১৬ বিঘা আবাদী জমি। ওই জমিতে পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ডের শৈলমারী মহল্লার পাটকল মৌজা যাহার জে,এল, নং,৩৭২, দাগ নং-৪১৩ তে সম্পূর্ণ সরকারি অর্থে প্রায় ২৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে একটি লো লিফট পাম্প (এলএলপি) স্থাপন ও ১০০০ মিটার ভূ-গর্ভস্থ সেচ নালা নির্মাণ করা হয়। গত বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) রাত্রি ১১ টার দিকে অজ্ঞাত নামা বিবাদীগণ অবৈধভাবে এক্সকেভেটর (ভেকু) দ্বারা কৃষি জমিতে পুকুর খননের লক্ষ্যে মাটি খনন কালে উক্ত এলএলপি সেচ জীমের কয়েকশ ফুট ভূ-গর্ভস্থ সেচ নালা ও একটি আউটলেট ক্ষতিগ্রস্থ করে। এতে প্রায় একলক্ষ টাকা ক্ষতি হয়।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান, ইদেও বেশ কিছু দিন আগ থেকে শৈলমারি মহল্লায় মৃত ইঞ্জিনিয়ার আবু সাঈদের প্রায় সাড়ে ১৬-২০ বিঘা আবাদী জমিতে পুকুর খনন করে আসছিল সিংড়া পৌর এলাকার শাহীন ও স্থানীয় কাউন্সিলর কালাম। বিষয়টি জানার পর স্থানীয় পৌর মেয়র এবং উপজেলা প্রশাসন বন্ধ কওে দেয়। কিন্তু কদিন বন্ধ থাকার পর আবার শুরু হয়।

মামলার বাদী (বিএডিসি) সিংড়া জোন অফিসের সহকারী প্রকৌশলী মানিক রতন জানান, বাংলাদেশ সরকার এর জাতীয় কৃষি নীতি অনুযায়ী সেচ কাজের জন্য ভূ-পরিস্থ পানিসম্পদ ব্যবহারে অগ্রাধিকার প্রদান করে লাগসই প্রযুক্তি ব্যবহার সম্প্রসারণের নির্দেশনা অনুসারে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) কর্তৃক প্রবহমান নদীর পানি সুষ্ঠু ব্যবহারের লক্ষ্যে উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন পাম্প স্থাপন এবং জমি ও পানির অপচয় রোধে ইউপিভিসি পাইপের মাধ্যমে ভূ-গর্ভস্থ সেচ নালা নির্মাণ করে।

সেই-প্রেক্ষিতে সেচ কাজে ভূ-পরিস্থ পানি ব্যবহারের লক্ষ্যে সিংড়া থানাধীন-পৌরসভার শৈলমারী মহল্লার পাটকল মৌজায় সরকারি প্রায় ২৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ১টি লো লিফট পাম্প (এলএলপি) স্থাপন করা হয়েছে। এতে স্থানীয় সেচ স্কীমের কৃষকগণ স্বল্প খরচে সেচ কাজে ভূ-পরিস্থ পানি ব্যবহার করে সরকারী সুবিধা ভোগ কওে আসছেন। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত্রি ১১ ঘটিকায় অজ্ঞাত নামা বিবাদীগণ অবৈধ ভাবে এক্সকেভেটর (ভেকু) দ্বারা কৃষি জমিতে পুকুর খননের লক্ষ্যে মাটি খনন কালে উক্ত এলএলপি সেচ জীমের কয়েকশ ফুট ভূ-গর্ভস্থ সেচ নালা ও একটি আউটলেট ক্ষতিগ্রস্থ করে। এ ঘটনার আলোকে অভিযুক্ত বিবাদীগণের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য থানায় মামলা করেন তিনি।

এ ব্যাপারে নাটোরের জেলা প্রশাসক আবু নাসের ভুইঞা জানান, তার নির্দেশনায় সম্প্রতি সেখানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইসতেহাক আহমেদকে পাঠানো হয়েছিল। আবাদী জমিতে পুকুর খনন বন্ধ করাসহ এক্সকেভেটর (ভেকু) এর যন্ত্রাংশ খুলে নিয়ে আসা হয়। এসব ব্যপারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাসহ নিয়মিত অভিযান চলমান রয়েছে।