সিংড়ায় ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি, কলেজের অফিস সহায়ক আটক

আপডেট: আগস্ট ১১, ২০২২, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি:


নাটোরের সিংড়ায় কলেজ ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে চামারী ডিগ্রী কলেজের অফিস সহায়ক আব্দুল খালেককে (৫৮) আটক করেছে পুলিশ। বুধবার (১০ আগস্ট) দুপুর ১২টায় স্থানীয়রা আটক করে ৯৯৯ এ ফোন দিলে পুলিশ থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

আটক আব্দুল খালেক হাতিয়ান্দহ ইউনিয়নের হাসিঘাটি গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে।
স্থানীয়রা জানান, চামারী ডিগ্রী কলেজের অফিস সহায়ক আব্দুল খালেক একাদ্বশ শ্রেণির এক ছাত্রীকে প্রায়ই উত্যক্ত করতো। বুধবার কলেজ চলাকালীন সময়ে লাইব্রেরিতে সেই ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি করলে স্থানীয়রা আব্দুল খালেককে আটক করে ৯৯৯ এর মাধ্যমে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ তাঁকে থানায় নিয়ে আসে।

ভুক্তভোগী ছাত্রী বলেন, আব্দুল খালেক প্রায়ই আমাকে কুপ্রস্তাব দেয়। তাঁকে অনেকবার নিষেধ করেছি তারপরেও বুধবারে কলেজে তিনি আমাকে শ্লীলতাহানি করেছেন। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

অভিযুক্ত আব্দুল খালেক বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা। কলেজের অফিসরুমে বসে থাকার সময় অসাবধানতাবশত ঐ ছাত্রীর পায়ের সঙ্গে পা লেগেছে। শুধু এতটুকুই।

সিংড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, স্থানীয়রা অফিস সহায়ক আব্দুল খালেককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।