সিংড়ায় নারী নির্যাতন মামলা নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৭, ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


নাটোরের সিংড়ায় নারী-শিশু আইনে দায়ের করা মামলা তুলে নিতে হুমকি দেয়া হচ্ছে স্বপ্না ও তার পরিবারকে। বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে ওই পরিবার। এ নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ রয়েছে।
স্বপ্নার পরিবার জানায়, এ বছরের এক জুন স্বপ্না তার নানা বাড়িতে যাবার পথে রুবেল, জাহাঙ্গীর, লেবু, তোহার সহযোগিতায় অপহরণ করে নিয়ে গিয়ে পাবনা একটা বাড়িতে আটকে রেখে শারীরিক নির্যাতন চালায়। পরে মেয়ের মা শ্যামলী সিংড়া থানায় একটা অপহরণ মামলা করেন। পরে সিংড়া থানার এসআই খায়রুজ্জামানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয়।
স্বপ্না জানায়, তাকে ফুসলিয়ে নিয়ে গিয়ে শারীরিক নিযার্তন করে। এখনও তাকে তুলে নেয়ার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। তাদের ভয়ে গৃহবন্দী হয়ে আছি।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত রুবেল জানায়, মেয়ের সঙ্গে আমার সম্পর্ক ছিলো। সম্পর্কের কারণে মেয়েটির সঙ্গে বিয়ে হয়। কিন্তু মেয়ের বয়স কম বিধায় তার পরিবার অপহরণের মামলা দিয়েছে। বিয়ের পর মেয়ের নামে ১০ কাঠা সম্পত্তি লিখে দেই। এ নিয়ে শালিস হয়। শালিসে এক লাখ টাকার বিনিময়ে জমি ফেরত এবং ছাড়াছাড়ির কথা হয়। কিন্তু টাকা দেয়ার দিন মেয়েটি পুনরায় আত্মগোপন করে।
এ ব্যাপারে সিংড়া থানার এসআই খায়রুজ্জামান বলেন, মেয়েটির সঙ্গে রুবেলের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়, চার মাস সংসার করার পরে মনোমালিন্য হলে ছাড়াছাড়ির সিদ্ধান্ত হয়। এ নিয়ে এলাকায় শালিস হয়েছে। স্থানীয়ভাবে আপসের চেষ্টা করেছে। বর্তমানে মামলার তদন্ত বিদ্যমান রয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ