সিংড়ায় বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ে ভোগান্তিতে পরীক্ষার্থী ও কৃষকরা

আপডেট: এপ্রিল ১১, ২০১৭, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


নাটোরের সিংড়ায় গত কয়েকদিন থেকে বিদ্যুৎ নেই বললেই চলে। চলছে এইচএসসি ও সমমানের পরিক্ষা। কিন্তু ঠিকমতো বিদ্যুৎ পাচ্ছে না পরিক্ষার্থীরা। পৌর শহরের সরকারপাড়া গ্রামের রায়হান নামের এক পরিক্ষার্থী জানান, সারাদিন চরম গরম এরই মধ্যে চলছে পরিক্ষা। সন্ধ্যার পরে পড়তে বসলে বিদ্যুৎ থাকেই না। রাত ১০টার মধ্যে ৮-১০ বার বিদ্যুৎ যায় আর আসে। পরিক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য বিদ্যুতের প্রয়োজন অতুলনীয়। এদিকে চলনবিল জুড়ে চলছে বোরো ধানের আবাদ। কিন্তু জমিতে সেচ দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পানি পাচ্ছে না কৃষকরা। এ কারণ অযৌক্তিক লোডশেডিং। সাঁতপুকুরিয়া গ্রামের কৃষক মজিবর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, বিদ্যুতের কারণে আমাদের চরম ক্ষতি হচ্ছে। আমরা এই সমস্যা থেকে দ্রুত পরিত্রাণ চাই।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ ১’র সিংড়া জোনালের ডিজিএম জাকির হোসেন বলেন, আমাদের চাহিদা ১৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ, কিন্তু আমরা পাচ্ছি ৫-৬ মেগাওয়াট। তাছাড়াও ঢাকা অফিস থেকে ২৪ ঘণ্টায় ৩-৪ বার কেডা অপারেশন হয়।
এ বিষয়ে নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ-১’র জেনারেল ম্যানেজার লোডশেডিংয়ের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, গত তিন দিনের প্রচ- গরমের কারণে হঠাৎ লোডশেডিং বেড়ে গেছে। আগামী দুই-এক দিনের মধ্যে এটা ঠিক হয়ে যাবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ