সিংড়ায় মসজিদের ভিতরে মুয়াজ্জিনকে রক্তাক্ত, বাবা-ছেলে গ্রেফতার

আপডেট: জুলাই ৩, ২০২২, ৯:৪৫ অপরাহ্ণ

সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি:


নাটোরের সিংড়া উপজেলার চৌগ্রাম কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন মো. নিজাম উদ্দিন (৭৫) ও তার ভাই মো. আকবর আলীকে (৮০) মারধর করে রক্তাক্ত করার মামলায় অভিযুক্ত বাবা-ছেলেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার রাত ও রোববার (৩ জুলাই) সকালে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে শনিবার রাতে আহত মুয়াজ্জিনের ভাতিজা সিংড়া থানায় ৩ জনের নামে মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শনিবার (২ জুলাই) মসজিদে মাসোয়ারা থাকায় বিকেল সাড়ে ৫টায় মসজিদে খাওয়া-দাওয়া করেন অভিযুক্ত মো. হাবিব আরমান (৩২) তাঁর ভাই আব্দুল হাকিম (২৭) ও বাবা মো. আব্বাস আলী (৭৫)। মসজিদে খাবার পরে অপরিস্কার থাকায় মুয়াজ্জিন মো. নিজাম উদ্দিন তাঁদেরকে মসজিদ পরিস্কার করতে বলায় তাকে গালিগালাজ করে এবং ক্ষিপ্ত হয়ে ইটের আধলা দিয়ে মাথায় ও চোখে আঘাত করে রক্তাক্ত করেন অভিযুক্তরা।

মুয়াজ্জিনের চিৎকারে তাঁর ভাই মো. আকবর আলী ছুটে এলে তাঁকেও মারপিট করে তারা। পরে স্থানীয়রা তাঁদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। রবিবার দুপুরে উন্নত চিকিৎসার জন্য মুয়াজ্জিন মো. নিজাম উদ্দিনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এ ঘটনায় আহত মুয়াজ্জিনের ভাতিজা মো. আতিকুল ইসলাম শনিবার রাতে ৩ জনকে অভিযুক্ত করে সিংড়া থানায় মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ শনিবার রাতে ও রোববার সকালে এ ঘটনার মূল অভিযুক্ত মো. হাবিব আরমান ও তাঁর বাবা মো. আব্বাস আলীকে গ্রেফতার করেছে।

সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নূর-এ-আলম সিদ্দিকী জানান, এ ঘটনায় মামলা দায়ের হলে অভিযুক্ত দুজনকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ