সিংড়া ও নলডাঙ্গায় বন্যা পরস্থিতির অবনতি || পানিবন্দি লাখো মানুষ

আপডেট: আগস্ট ২২, ২০১৭, ১:৩৮ পূর্বাহ্ণ

নাটোর অফিস


সিংড়া ও নলডাঙ্গায় এভাবেই পানিবন্দি অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন মানুষ-সোনার দেশ

নাটোরের সিংড়া ও নলডাঙ্গায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। সিংড়ায় আত্রাই নদীর পানি বিপদসীমার ৯৩ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ কারণে প্রতিদিনই প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন এলাকা। সিংড়ার লাখো মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। বন্যাদুর্গত এলাকার মানুষদের জন্য সাতটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে।
বন্যায় প্লাবিত হওয়ায় কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বন্যাদুর্গতদের জানমাল রক্ষার্থে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা বন্যাদুর্গত এলাকা পরিদর্শন করছেন। বন্যার্ত মানুষের জন্য ত্রাণ বিতরণের কার্যক্রম শুরু হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল।
অপরদিকে, জেলার নলডাঙ্গা উপজেলার বারনই নদীর পানি বৃদ্ধি হওয়ায় তিন ইউনিয়নের অন্তত ১০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় উপজেলার, বাশিলা পূর্ব পাড়া, দক্ষিণপাড়া, বিলজোয়ানী, পাটুল, ভুষনগাছাসহ অন্যান্য এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়েছে। এছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বন্যার পানি ঢুকে পড়ায় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক মিলে ২২টি বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। হালতি বিলে তলিয়ে গেছে ৭শ হেক্টর আমন ধান। ভেসে গেছে ৬০টি পুকুরের মাছ। গতকাল সোমবার সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম রমজান ও নাটোর পৌর মেয়র উমা চৌধূরী জলি নলডাঙ্গার বিভিন্ন গ্রামে বন্যা দুর্গতদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন। নলডাঙ্গা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করে বন্যার্তদের তালিকা তৈরির জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এখন জরুরী তালিকা তৈরি করে বন্যাদুর্গতদের মাঝে ত্রাণ সহায়তা দেয়া হচ্ছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ