সিওয়াইবির রাবি শাখার নেতৃত্বে আবইয়াদ-জিন্নুরাইন

আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০২২, ১০:৪৮ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক:


ভোক্তা অধিকার সংগঠন ‘কনজ্যুমার ইয়ুথ বাংলাদেশ’ (সিওয়াইবি) এর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখার নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটিতে সভাপতি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের শিক্ষার্থী আবইয়াদ বিন বাজালকে এবং সাধারন সম্পাদক হিসেবে সমাজকর্ম বিভাগের এম.এম. জিন্নুরাইন-ই-ইলাহি কে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (০ ৩ ডিসেম্বর) বিকেলে কনজ্যুমার্স সোসাইটি (সিসিএস) এর নির্বাহী পরিচালক ও সিওয়াইবি’এর সভাপতি পলাশ মাহমুদ এবং সাধারণ সম্পাদক ইমরান শুভ্র সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আগামী এক বছরের জন্য রাবি শাখার ৩৬ সদস্যের কমিটির অনুমোদন দেয়া হয়।

নতুন কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন সহ-সভাপতি মো. আল আমিন ইসলাম, মাহমুদা আক্তার মিরা, মেহেদী হাসান রিপন, মো. মাহমুদুল হাসান, মোঃ শাইদুল ইসলাম, মো. জাহিদ হাসান। যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সারজিল আহমেদ, নিশাত নুর, ফারজানা ইয়াসমিন, সুমাইয়া ইসলাম মিম, রিয়া রানী শীল।

সাংগঠনিক সম্পাদক আহসান হাবীব রেজুয়ান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এস.এম.তাহমিদ হাসান ও কৌশিকুর রহমান। অর্থ সম্পাদক মোঃ লুৎফর রহমান, সহ-অর্থ সম্পাদক নির্মল চন্দ্র রায় ও মোঃ কাওসার আহমেদ। অফিস সম্পাদক মোঃ মুরাদ হাসান, সহ-অফিস সম্পাদক মোঃ রানা হোসাইন। পরিকল্পনা ও উন্নয়ন সম্পাদক মোঃ ইমামুল হোসাইন, সহ-পরিকল্পনা ও উন্নয়ন সম্পাদক দেবু দাস।

তথ্য ও প্রকাশনা সম্পাদক প্রীতম কুন্ডু, সহ-তথ্য ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহীন আহমেদ জয়। ভোক্তা অধিকার বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সোহান উদ্দিন, সহ-ভোক্তা অধিকার বিষয়ক সম্পাদক জোসেফ পারভেজ। প্রচার সম্পাদক নোমান ইমতিয়াজ, সহ- প্রচার সম্পাদক স্বজন রায়। সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক তাহমিদ ফুয়াদ, সহ-সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মারিয়া ইসলাম রিমি ও মধুসূদন চন্দ্র বর্মণ। ছাত্র কল্যান বিষয়ক সম্পাদক মো. জাহিদ হাসান, সহ-ছাত্র কল্যান বিষয়ক সম্পাদক মো. তাজুল ইসলাম, মোঃ আকন বিন কাওসার, বিশ্বজিৎ বিশ্বাস।

এছাড়াও কনজ্যুমার ইয়ুথ বাংলাদেশ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টামন্ডলীতে অধ্যাপক আবুল হাসান চৌধুরী, অধ্যাপক ড. রওশন জাহিদ, অধ্যাপক ড. এম মাহবুবুর রহমান রয়েছেন।

উল্লেখ্য, বেসরকারি ভোক্তা অধিকার সংস্থা কনশাস কনজ্যুমার্স সোসাইটি (সিসিএস) ২০১৩ সাল থেকে দেশে খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধ ও ভোক্তা অধিকার রক্ষায় সচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ করে যাচ্ছে। সংগঠনটি বাংলাদেশের ৩৩৫টি থানা, ৬১টি জেলা ও ৪২টি বড় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রায় ১২ হাজার স্বেচ্ছাসেবী নিয়ে সক্রিয় ভূমিকা রাখছে। এই সিসিএস এর যুব শাখা ‘কনজ্যুমার ইয়ুথ বাংলাদেশ’ (সিওয়াইবি)।