সিন্ধুর জল বিশ্বব্যাঙ্কে গড়িয়ে দিল পাকিস্তান

আপডেট: জানুয়ারি ১১, ২০১৭, ১২:০০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



সিন্ধু নদীর জল নিয়ে বিবাদ দূর করতে মধ্যস্থতা করতে বিশ্বব্যাঙ্কের কাছে আর্জি জানাল পাকিস্তান। ‘ডন’–এর খবর অনুযায়ী, বিশ্বব্যাঙ্কের কাছে পাকিস্তান জানিয়েছে সিন্ধু জলবণ্টন চুক্তি (আইডব্লিউটি) বাঁচাতে হলে মধ্যস্থতা ছাড়া পথ নেই। কিষানগঞ্জে ৩৩০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন এবং রাটলেতে ৮৫০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ভারতের দু’টি জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের ওপর আপত্তি জানানোয় কাজ বন্ধ হয়ে যায়। ভারতও সিন্ধু নদীতে পাকিস্তানকে জলবিদ্যুৎ প্রকল্প তৈরিতে বাধা দেয়। এই ধরনের ক্ষেত্রে উভয় দেশের সম্মতি না থাকলে কোনও প্রকল্পে টাকা দেয় না বিশ্বব্যাঙ্ক। এই পরিস্থিতিতে গত বছর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পাকিস্তানের দিকে জল আটকে দেওয়ার কথা জানান। ভয় পেয়ে পাকিস্তান বিশ্ব ব্যাঙ্কের দ্বারস্থ হয়েছে। ভারত আগেই জানিয়েছে কোনও মধ্যস্থতা মানা হবে না। তবে নিরপেক্ষ বিশেষজ্ঞের মতামত বিবেচনা করা হবে। ১৯৬০ সালে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আয়ুব খানের সঙ্গে সিন্ধু জলবণ্টন চুক্তি করেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরু। চুক্তি অনুযায়ী, সিন্ধু নদীর ২০ শতাংশ জল ব্যবহার করতে পারবে ভারত। তাছাড়া, সিন্ধু অববাহিকার পূর্ব দিকের তিন নদী শতদ্রু, রবি এবং বিপাশার ওপর ভারতের কর্তৃত্ব থাকবে। আর পশ্চিম দিকের তিন নদী সিন্ধু, বিতস্তা এবং চন্দ্রভাগার ওপর কর্তৃত্ব থাকবে পাকিস্তানের হাতে।-আজকাল