সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল রোগি শূন্য

আপডেট: March 29, 2020, 7:02 pm

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি


রোগি শূন্য সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল- সোনার দেশ

সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে করোনা আতঙ্কে এখন রোগিশূন্য হয়ে পড়েছে। হাসপাতালে বিভিন্ন ওয়ার্ডের রোগিরা ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি চলে গেছেন। অথচ কয়েকদিন আগেও বেডের চেয়ে অনেক রোগী ভর্তি ছিল এ হাসপাতালে।
গত শনিবার ও রোববার (২৮ মার্চ) দুপুরে সরজমিনে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, বিভিন্ন ওয়ার্ডে রোগি নেই বললেই চলে।
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানান, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগিদের জন্য ১০টি আইসোল্যুশন বেড তৈরি রাখলেও কেউ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত কিনা তা নিশ্চিত হতে পরীক্ষার জন্য সনাক্তকরণ কিট এখন পর্যন্ত হাসপাতালে পৌঁছেনি।
হাসপাতালের আউটডোর এবং ইনডোরে কর্মরত চিকিৎসক ও নার্সদের করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষার কোনো পিপিই না থাকলেও চিকিৎসক ও নার্সরা স্ব-স্ব উদ্যোগে জীবনের বাঁচানোর জন্য নিয়েই দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে।
এসময় মেডিসিন ওয়ার্ডের সিনিয়র নার্স মমতাজ সিদ্দিক বলেন, এখানে ২৯ টি বেড থাকলেও করোনা আতঙ্কে সব রোগি ছাত্রপত্র নিয়ে বাড়ি চলে গেছে, এই ওয়ার্ডে মাত্র ১জন রোগি আছে।
শিশু ওয়ার্ডের সিনিয়র নার্স ইশরাত জাহান বলেন, এই ওয়ার্ডে সব সময় ৪০/৫০ জন রোগি থাকে। কিন্তু করোনা আতঙ্ক সব চলে গেছে। মাত্র ৪জন রোগি আছে। গাইনি ওয়ার্ডে ১১জন ও সিসিইতে ২জন ভর্তি আছে।
এ ব্যাপারে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. রঞ্জনকুমার দত্ত জানান, গত কয়েক দিন মানুষ আতঙ্কে হাসপাতালের আউটডোরে ভিড় করলেও ভয়ে কেউ হাসপাতালে ভর্তি হননি।
ফলে হাসপাতালের সব ওয়ার্ডগুলোই বর্তমানে খালি হয়ে গেছে। চিকিৎসকদের করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষায় ১০০ সেট পিপিই সরঞ্জাম হাসপাতালে পৌঁছেছে বলে তিনি জানান।