সিরিয়ার ইদলিবে ‘রাসায়নিক হামলায়’ নিহত ৫৮

আপডেট: এপ্রিল ৫, ২০১৭, ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিব প্রদেশে সিরিয়ার সরকারি বাহিনী অথবা রাশিয়ার জঙ্গি বিমানগুলোর সম্ভাব্য রাসায়নিক গ্যাস হামলায় অন্তত ৫৮ জন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস।
মঙ্গলবার সকালে সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশটিতে চালানো এ হামলায় নিহতদের মধ্যে নয়টি শিশু রয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাজ্য-ভিত্তিক পর্যবেক্ষক সংস্থাটি।
ইদলিবের খান শেইখৌন শহরে চালানো এ হামলায় ৬০ জনেরও বেশি আহত হওয়ার খবর দিয়েছে তারা।
তবে অবজারভেটরির এ তথ্যের বিষয়ে সিরিয়ার সেনাবাহিনীর মন্তব্য জানতে তাৎক্ষণিকভাবে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। অনিশ্চিত কয়েকটি খবরে বলা হয়েছে, স্থানীয় কয়েকটি ক্লিনিকের ওপর বিমান হামলা হয়েছে।
গৃহযুদ্ধে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করার কথা বরাবরই অস্বীকার করে আসছে সিরীয় সরকার।
হামলার পর অনেক লোকের শ্বাস রুদ্ধ হয়ে আসে, কেউ কেউ মূর্ছা যান, আবার অনেকের মুখ থেকে ফেনা বের হয়ে আসে বলে মেডিকেল সূত্রগুলোর বরাতে জানিয়েছে অবজারভেটরি। মেডিকেল সূত্রগুলো হামলাটিকে ‘গ্যাস হামলা’ বলে দাবি করেছে বলে জানিয়েছে তারা।
সরকার বিরোধী ওরিয়েন্ট নিউজ টেলিভিশন জানিয়েছে, এ হামলায় ৫০ জন নিহত ও দেড়শ জন আহত হয়েছে। ওদিকে, ইদলিবের চ্যারিটি এম্বুলেন্সের দায়িত্বে থাকা মোহাম্মদ রাসোল নিহতের সংখ্যা ৬৭ এবং আহতের সংখ্যা ৩শ’ উল্লেখ করেছেন। আবার বিদ্রোহীপন্থি স্টেপ নিউজ এজেন্সি মৃতের সংখ্যা ১শ’ উল্লেখ করেছে।
সিরিয়ান অবজারভেটরি নিহতদের মধ্যে ১১ জন শিশু বলে জানিয়েছে। তবে হামলায় কি ধরনের গ্যাস ব্যবহার হয়েছে তা সঠিকভাবে জানাতে পারেনি সংগঠনটি।
এর আগে সোমবার সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের পূর্ব দিকে বিদ্রোহীদের শক্তিকেন্দ্র পূর্ব গৌতায় সরকারি জঙ্গি বিমানগুলোর ব্যাপক বোমাবর্ষণে অন্তত ২৭ জন নিহত হয়।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ