সিরিয়ায় বাসবহরে বোমা হামলায় নিহতদের মধ্যে ৬৮টি শিশু

আপডেট: এপ্রিল ১৮, ২০১৭, ১২:৩৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সিরিয়ার অবরুদ্ধ শহরগুলো থেকে সরিয়ে নেয়া বাসিন্দাদের বাসবহরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ১২৬ জনের মধ্যে অন্তত ৬৮টি শিশু রয়েছে বলে জানিয়েছে সরকার বিরোধী আন্দোলনের কর্মীরা।
শনিবার বিকেলে সিরিয়ার আলেপ্পো শহরের পশ্চিমে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত রাশিদিন এলাকার একটি তল্লাশি চৌকিতে অপক্ষেমাণ বাসবহরটিতে বিস্ফোরক ভর্তি একটি গাড়ি ঢুকে পড়ে আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটায়, জানিয়েছে বিবিসি।
যুক্তরাজ্যভিত্তিক পর্যবেক্ষক গোষ্ঠী সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস রোববার জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে অন্তত ১০৯ জন আল কায়েদা সমর্থিত সুন্নি বিদ্রোহীদের দ্বারা অবরুদ্ধ দুটি শহরের বাসিন্দা যাদের সরিয়ে নেয়া হচ্ছিল, এদের অধিকাংশই শিয়া মুসলিম।
নিহত অন্যান্যদের মধ্যে ত্রাণকর্মী ও বিদ্রোহী যোদ্ধা রয়েছে। এই হামলায় আরও বহু মানুষ আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে গোষ্ঠীটি।
বাসবহরটিতে চালানো ভয়াবহ ওই বোমা হামলায় কয়েকটি বাস খ-বিখ- হয়ে যায় এবং আশপাশের অনেক গাড়িতে আগুন ধরে যায়। বিস্ফোরণের পর ঘটনাস্থলে সারি সারি লাশ পড়ে থাকতে দেখা যায়।
সরকারি বাহিনী নিয়ন্ত্রিত কিন্তু বিদ্রোহীদের দ্বারা অবরুদ্ধ দুটি শহর ফোয়াহ ও কেফরাইয়া থেকে এসব বাসিন্দাদের সরকারি বাহিনী নিয়ন্ত্রিত আলেপ্পোয় সরিয়ে নেয়া হচ্ছিল। ২০১৫ সালের মার্চ থেকে শহর দুটির বাসিন্দারা অবরুদ্ধ হয়ে ছিলেন।
এ পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি।
খ্রিস্টানদের ধর্মীয় পরব ‘ইস্টার সানডে’তে দেওয়া ভাষণে ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের শীর্ষ ধর্মীয় নেতা পোপ ফ্রান্সিস এই বোমা হামলাকে ‘পলায়নপর উদ্বাস্তুদের ওপর চালানো জঘন্য হামলা’ বলে বর্ণনা করেছেন।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ