সিরিয়ায় হামলা চালিয়ে যুক্তরাষ্ট্রই ‘বিপদ সীমা লঙ্ঘন’ করেছে

আপডেট: এপ্রিল ১১, ২০১৭, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সিরিয়ার বিমান ঘাঁটিতে হামলা চালিয়ে যুক্তরাষ্ট্র নিজেই ‘রেড লাইন’ অতিক্রম করেছে বলে পাল্টা অভিযোগ করেছে প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের মিত্ররা।
প্রেসিডেন্ট আসাদের সমর্থনে রাশিয়া, ইরান ও বেসামরিক সশস্ত্র বাহিনীগুলো মিলে তৈরি করা একটি যৌথ কমান্ড রোববার এ অভিযোগ করেছে।
যুক্তরাষ্ট্রের এ হামলার প্রতিক্রিয়ায় আসাদের প্রতি সমর্থন আরো বাড়ানোর ঘোষণা দিয়ে তারা বলেছে, নতুন যে কোনো আগ্রাসন মোকাবিলা করবে তারা।
ইলাম আল হারবিতে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে যৌথ কমান্ড বলেছে, “সিরিয়ায় আগ্রাসন চালিয়ে আমেরিকা বিপদ সীমা (রেড লাইন) অতিক্রম করেছে। এখন থেকে যে কোনো আগ্রাসন বা বিপদ সীমার লঙ্ঘন আমরা শক্তি দিয়ে প্রতিহত করবো তা যেখান থেকেই আসুক এবং আমাদের জবাব দেওয়ার ক্ষমতা সম্পর্কে আমেরিকা ভালোই জানে।”
শুক্রবার ভোররাতে ভূমধ্যসাগরে অবস্থানরত দুটি যুদ্ধজাহাজ থেকে সিরিয়ার হামস প্রদেশের শায়রাত বিমান ঘাঁটিতে ৫৯টি টমাহক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে যুক্তরাষ্ট্র। এতে ছয় জন নিহত হওয়ার পাশাপাশি সিরিয়ার ওই বিমান ঘাঁটিটি ধ্বংস হয়ে যায়।
এই শায়রাত বিমান ঘাঁটি থেকেই সিরিয়ার বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রিত ইদলিব প্রদেশের খান শেইখৌন শহরে রাসায়নিক অস্ত্র হামলা চালানো হয়েছিল বলে দাবি যুক্তরাষ্ট্রের।
ছয় বছরেরও বেশি সময় ধরে চলা সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে এই প্রথম আসাদ বাহিনীর অবস্থানে সরাসরি হামলা করল যুক্তরাষ্ট্র। আসাদের মিত্র রাশিয়া ও ইরান যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপের সমালোচনা করেছে।- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ