‘বাংলাদেশ সেনাবাহিনী বিশ্বের এক নম্বর শান্তিরক্ষী বাহিনী’

আপডেট: নভেম্বর ২৪, ২০২১, ৯:১৫ অপরাহ্ণ


নাটোর প্রতিনিধি:


সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এখন বিশ্বের এক নম্বর শান্তিরক্ষী বাহিনী হিসেবে বিভিন্ন দেশে শান্তি স্থাপনে কাজ করছে।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) সকালে নাটোরের কাদিরাবাদ সেনানিবাসে ইঞ্জিনিয়ার সেন্টার অ্যান্ড স্কুল অব মিলিটারি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

শফিউদ্দিন আহমেদ বলেন, দেশ ও জাতি গঠনে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী বিশেষ করে কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্স গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষা, দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় নিরলস কাজ করছে সেনাবাহিনী।

এ সময় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের অষ্টম কর্নেল কমান্ড্যান্ট হিসেবে অভিষিক্ত হন তিনি। সামরিক রীতি ও ঐতিহ্য মেনে এই আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়। অভিষেক অনুষ্ঠানে কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের জ্যেষ্ঠতম অধিনায়ক এবং মাস্টার ওয়ারেন্ট অফিসার সেনাবাহিনী প্রধানকে ‘কর্নেল র‌্যাংক ব্যাজ’ পরিয়ে দেন।

এর আগে প্যারেড স্কয়ারে পৌঁছালে সেনাবাহিনী প্রধানকে অভিবাদন জানানো হয়। এ সময় কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের একটি চৌকস দল তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করে।
এর আগে সেনাবাহিনী প্রধান মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মদানকারী কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের বীর শহীদদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের বাৎসরিক সম্মেলনে যোগ দেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আর্মি সদর দফতরের ট্রেনিং এন্ড ডকট্রিম কমান্ড লেফটেন্যান্ট জেনারেল এস এম মতিউর রহমান, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইঞ্জিনিয়ার ইন চীফ মেজর জেনারেল ইবনে ফজল সায়েখুজ্জামান, বগুড়া এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল এ কে এম নাজমুল হাসান, কাদিরাবাদ সেনানিবাসের ইঞ্জিনিয়ার সেন্টার এন্ড স্কুল অব মিলিটারী ইঞ্জিনিয়ারিং এর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ এবং ইঞ্জিনিয়ার কোরের সকল ইউনিটকে অধিনায়কগণ অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে নবনিযুক্ত কর্নেল কমান্ড্যান্ট ও সেনাবাহিনীর উচ্চ পদস্থ অফিসার সহ ইঞ্জিনিয়ার কোরের সকল সামরিক-বেসামরিক ব্যক্তিবর্গের উদ্দেশ্যে দরবার নেন। দরবার শেষে কর্নেল কমান্ড্যান্ট কোয়ার্টার কার্ড পরিদর্শন করেন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের বীর শহীদদের উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধার্ঘ্য ও স্মৃতিসৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।

এছাড়াও কর্নেল কমান্ড্যান্ট, বাৎসরিক অধিনায়ক সম্মেলন ২০২১ এ আগত অতিথিবৃন্দের উদ্দেশ্যে ভাষণ প্রদান করেন। পরে নবনিযুক্ত কর্নেল কমান্ড্যান্ট তাঁর সম্মানে আয়োজিত প্রীতিভোজে এ প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন সেনা প্রধান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ