সেপ্টেম্বরে বিদেশে গেছেন ৫৩ হাজার কর্মী

আপডেট: অক্টোবর ৬, ২০১৯, ১:০১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বৈদেশিক কর্মসংস্থান একটি গুরুত্বপূর্ণ খাত। বিভিন্ন দেশে জনশক্তি পাঠানোর মাধ্যমে বাংলাদেশ বিপুল অঙ্কের রেমিট্যান্স পাচ্ছে। বর্তমানে বাংলাদেশ বিশ্বের প্রায় ১৭০টি দেশে কর্মী পাঠাচ্ছে।
জনশক্তি প্রশিক্ষণ ও কর্মসংস্থান ব্যুরোর (বিএমইটি) এক হিসাব অনুযায়ী ১৯৭৬ সাল থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে প্রায় এক কোটি ২০ লাখেরও বেশি লোক বিদেশ গেছেন।
বিএমইটি বলছে, চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ৫৩ হাজার ১৮১ জন কর্মীর বিদেশে কর্মসংস্থান হয়েছে। আর সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মোট চার লাখ ৭৭ হাজার কর্মী কর্মসংস্থানের উদ্দেশ্যে বিদেশে গেছেন।
২০১৭ সালে ১০ লাখের বেশি এবং ২০১৮ সালে সাত লাখ ৩৪ হাজার ১৮১ জন কর্মী কাজের উদ্দেশ্যে বিদেশে গেছেন।
বাংলাদেশের উদীয়মান অর্থনীতিতে প্রবাস আয় অর্থাৎ রেমিট্যান্সের গুরুত্ব অপরিসীম। যা বাংলাদেশের রিজার্ভ মুদ্রার প্রায় অর্ধেক।
বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব মতে, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের সেপ্টেম্বর মাসে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ১ দশমিক ৪৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন।
বাংলাদেশ ব্যাংকের সূত্র মতে, চলমান ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে মোট রেমিট্যান্সের পরিমাণ ৪ দশমিক ৫৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। আর গত অর্থবছরে (২০১৮-১৯) মোট রেমিট্যান্সের পরিমাণ ১৬ দশমিক ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।
প্রবাসীদের রেমিট্যান্স পাঠানোর ক্ষেত্রে ২ শতাংশ প্রণোদনা দেওয়ায় এবং দক্ষ জনশক্তি রপ্তানি বৃদ্ধি পাওয়ায় রেমিট্যান্স প্রবাহ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এছাড়াও ঈদ, পূজা এবং বিভিন্ন উৎসবকে কেন্দ্র করে প্রবাসীরা দেশে বেশি পরিমাণে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে থাকেন। তবে অন্যান্য বছরে ঈদের পরে রেমিট্যান্স প্রবাহে ভাটার টান থাকলেও এবার ঈদের পরেও রেমিট্যান্স বৃদ্ধি পাচ্ছে।
তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ