সোনামসজিদ স্থলবন্দরে ব্যবসায়ীদের প্রতীকী কর্মবিরতী পালন

আপডেট: মার্চ ১৩, ২০১৭, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি


চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দরের কাস্টমস কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে পণ্য ছাড়ে বিভিন্ন ধরণের অনিয়ম স্বেচ্ছাচারিতা ও হয়রানির অভিযোগ এবং ভারতীয় ব্যবসায়ীদের আকস্মিক পাথরের দাম বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন অনিয়মের প্রতিবাদে দুই ঘণ্টার কর্মবিরতী পালন করা হয়েছে। গতকাল রোববার প্রতীকী এ কর্মবিরতী পালন করে স্থানীয় সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন ও স্থল বন্দরের আমদানি-রফতানির সঙ্গে জড়িত তিনটি সংগঠন।
এর মধ্যে রয়েছে সোনামসজিদ আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপ, সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন ও স্থলবন্দর শ্রমিক সমন্বয় কমিটি। রোববার সকাল সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত কর্মবিরতী পালন কালে সবধরনের কার্যক্রম থেকে বিরত থাকে এ সংগঠনগুলো। তাদের হয়রানি বন্ধ না হলে পরবর্তীতে আরো কঠোর কর্মসূচি দিতে তারা বাধ্য হবেন বলে তারা জানায়।
তিন সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা কাস্টমস কমিশনারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন, ভারত থেকে আমদানিকৃত পণ্যগুলি ছাড়ের ক্ষেত্রে হয়রানির কারণে আমদানি কারকদের লোকসান গুণতে হচ্ছে। তারা জানান, ২০১৬ সালে ৯ আমদানিকারকের আমদানিকৃত পণ্য গুদামে পড়ে রয়েছে। নানা অযুহাত ও টালবাহানা করে এসব পণ্য ছাড় দিচ্ছে না বলে অভিযোগ তুলেন। এছাড়াও আমদানিকৃত পণ্যভর্তি ট্রাক ৩-৪ বার ওজন করে ব্যবসায়ীদের হয়রানি করা হচ্ছে। এ সমস্ত হয়রানির কারণে রাজস্ব আদায়ের ক্ষেত্রে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। লক্ষ্যমাত্র অর্জিত হচ্ছে না এ স্থলবন্দরের।
এর আগে গত মঙ্গলবার দুপুরে সিএন্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের কার্যালয়ে এ তিন সংগঠন এক সংবাদ সম্মেলনে আগামী এক সপ্তার মধ্যে কাস্টমস বিভাগের পণ্য ছাড়ে হয়রানি, অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতা বন্ধ করে বন্দরের সকল ক্ষেত্রে সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনা না হলে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবে ব্যবসায়ীরা বলে জানানো হয়।