সৌদি জোটকে জবাব দিয়েছে কাতার

আপডেট: জুলাই ৫, ২০১৭, ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


কূটনৈতিক ও বানিজ্য সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে সৌদি আরব ও তার তিন মিত্র দেশ কাতারকে যে ১৩ দফা শর্ত দিয়েছিল তার জবাব দিয়েছে দোহা।
কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন আব্দুল রহমান আল থানি সোমবার কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আল আহমদ আল সাবাহ’র কাছে কাতারের শেখ তামিমের হাতে লেখা চিঠি হস্তান্তর করেন। তবে চিঠির বিষয়বস্তু প্রকাশ করা হয়নি।
এর আগে সৌদি আরব ও তার মিত্র দেশগুলো তাদের দাবি পূরণের জন্য কাতারকে যে চুড়ান্ত সময়সীমা দিয়ে ছিল, তা ৪৮ ঘন্টা বাড়িয়ে দেয়। কাতারের সঙ্গে সৌদি আরবের সম্পর্কে উত্তেজনা প্রশমনে মধ্যস্থতা করছে কুয়েত। রোববার কুয়েতই চূড়ান্ত সময়সীমার মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন জানায়।
সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মিশর গত ৫ জুন কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে। একই সঙ্গে তারা দেশটির ওপর কঠোর অবরোধ আরোপ করে। সম্পর্ক স্বাভাবিক ও অবরোধ প্রত্যাহারের জন্য ২২ জুন চার দেশ কাতারকে ১৩ দফা শর্ত দেয়। শর্ত মেনে নেয়ার জন্য কাতারকে ১০ দিন সময় দেয়া হয়েছিল ।
কাতারকে ওেয়া শর্তের মধ্যে রয়েছে, দোহাকে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার, আল-জাজিরা টিভি নেটওয়ার্ক বন্ধ, ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন এবং তুর্কি সামরিক ঘাঁটি বন্ধ করে দেয়া।
কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিয়াদের দেয়া প্রথম সময়সীমা শেষ হওয়ার আগে বলেছিলেন, তার দেশ এসব শর্ত প্রত্যাখ্যান করছে। সোমবারই কাতারের নিয়োগ করা একজন ব্রিটিশ আইনজীবীও এসব দাবিকে ‘আন্তর্জাতিক আইন পরিপন্থি’ বলে তা প্রত্যাখ্যান করেছিলেন।
এদিকে শর্তের জবাবের বিস্তারিত প্রকাশ করা না হলেও সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দেল আল জুবেইর সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, তিনি আশা করছেন কাতারের জবাব ইতিবাচক হবে।
তিনি বলেছেন, ‘আমরা আশা করছি ইতিবাচক জবাব সমস্যার সমধান করতে সক্ষম হবে।’
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি