স্কুলে সিনেমা দেখাতে চায় সংসদীয় কমিটি

আপডেট: জুলাই ১৪, ২০১৭, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


চলচ্চিত্রের মাধ্যমে সুস্থ বিনোদন ও শিক্ষামূলক কার্যক্রম এগিয়ে নিতে স্কুলের শিক্ষার্থীদের মাসে একদিন সিনেমা দেখানোর পক্ষে তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি।
এর মাধ্যমে আগের মতো দেশীয় চলচ্চিত্রের প্রতি দর্শক আগ্রহ তৈরি হবে বলেও মনে করছে তারা।
বৃহস্পতিবার কমিটির বৈঠকে আলোচনার পর এ বিষয়ে সুপারিশ প্রণয়নের জন্য একটি উপ-কমিটি গঠন করা হয়।
সংসদ সচিবালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “বৈঠকে অতীতের ন্যায় চলচ্চিত্রে দর্শক আকৃষ্ট ও চলচ্চিত্রের মাধ্যমে সুস্থ বিনোদন ও শিক্ষামূলক কার্যক্রমকে এগিয়ে নিতে স্কুলের শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে মাসে একদিন চলচ্চিত্র প্রদর্শন করার উপর বিস্তারিত আলোচনা হয়।
“স্কুলগুলোতে চলচ্চিত্র প্রদর্শনের কর্মসূচি চালুর বিষয়ে সুপারিশ প্রণয়নের জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি উপ-কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটি আগামী তিন মাসের মধ্যে স্থায়ী কমিটিতে রির্পোট প্রদান করবে।”
কমিটির সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমলকে উপ-কমিটির আহ্বায়ক করা হলও বাকি দুই সদস্যের নাম এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি।
বৈঠকে যৌথ প্রযোজনায় চলচ্চিত্র নির্মাণ ও প্রদর্শনের বিষয়ে সম্প্রতি চলচ্চিত্র কলাকুশলী, শিল্পী, প্রযোজক ও পরিবেশকদের মধ্যে যে বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে সে বিষয়ে স্থায়ী কমিটি উদ্বেগ প্রকাশ করে। ভবিষ্যতে যাতে এ ধরনের কোনো ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেজন্য যৌথ প্রযোজনায় চলচ্চিত্র নির্মাণ ও প্রদর্শনের নীতিমালা যুগোপযোগী করে প্রণয়নের সুপারিশ করে কমিটি।
এবারের ঈদে মুক্তি পাওয়া তিনটি চলচ্চিত্রের দুটিই ‘বস টু’ ও ‘নবাব’ ছিল যৌথ প্রযোজনার। এ দুটি চলচ্চিত্রের মুক্তি ঠেকাতে নানা চেষ্টা ছিল শিল্পী ও কলাকুশলীদের সংগঠনগুলোর।
বিভিন্ন পক্ষের আপত্তির মুখে গত রোববার নীতিমালা না হওয়া পর্যন্ত যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র নির্মাণ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।
বৈঠকে বাংলাদেশ বেতারে নতুন পদ কাঠামো তৈরি করে কর্মকর্তাদের পদোন্নতি জট নিরসনের উদ্যোগ নেয়ার সুপারিশ করা হয়।
কমিটির সভাপতি এ কে এম রহমতুল্লাহর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, সিমিন হোসেন রিমি, সাইমুম সরওয়ার কমল ও সালাহউদ্দিন আহমেদ (মুক্তি) অংশ নেন।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ