স্বাচিপ রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নাটোর ও নওগাঁ জেলার সম্মেলন অনুষ্ঠিত

আপডেট: মে ১৯, ২০২৪, ১১:০২ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:


স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) চাপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী, নাটোর ও নওগাঁ জেলার সম্মেলন-২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়।
রোববার (১৯ মে) সকাল ১১টায় জাতীয় পতাকা ও সংগঠনের পতাকা ও বেলুন-ফেস্টুন উড়িয়ে সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশনের সভাপতি ও স্বাচিপ এর প্রতিষ্ঠাতা মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন এবং উদ্বোধক বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

এরপর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ অডিটোরিয়ামে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনের শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্যগণ, জাতীয় চার নেতা ও মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর প্রধান অতিথি ও উদ্বোধক সহ সকল অতিথিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তির।

সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন-অগ্রযাত্রা অব্যাহত রয়েছে। স্বাধীনতার ৫৩ বছর পর আজকে যদি আমাদের নতুন প্রজন্ম জানতে চায়, বাংলাদেশ কেমন আছে? আমরা বলবো অবশ্যই ভালো আছে। করোনা মহামারি সময় বাংলাদেশ সফলভাবে সেটি মোকাবেলা করেছে। যতদিন শেখ হাসিনার হাতে দেশ, পথ হারাবে না বাংলাদেশ।

উদ্বোধকের বক্তব্যে মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সফলভাবে দেশ পরিচালনা করছেন। আমরা বলি নেত্রী আছেন সংসদে, আমরা আছি রাজপথে। এই কথাটি যেন আক্ষরিক অর্থে সব সময় সত্য হয়। কখনো যেন এটির ব্যতয় না ঘটে। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নেত্রী সংসদ থেকে নির্দেশ দিবেন, আমরা সেই নির্দেশ পালন করবো।
তিনি আরো বলেন, শুধু চিকিৎসক সমাজ নয়, দেশের সর্বত্রই স্বাধীনতার পক্ষের মানুষদের সংক্রিয় ভুমিকা নিয়ে সমাজ গঠনের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

তিনি আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াত তাদের আমলে রাজশাহী সহ সারাদেশে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের উপর নারকীয় অত্যাচার-নির্যাতন করা হয়েছিল। সেই অতীত আমরা ভুলে যাইনি। যারা দেশের স্বাধীনতাকে মেনে নিতে পারেনি, যারা বাংলাদেশকে আবারো পাকিস্তান বানাতে চায়, তাদেরকে প্রতিহত করতে আমাদের সব সময় প্রস্তুত থাকতে হবে। আর কখনোই বাংলাদেশের মানুষ তাদেরকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না। আমরা তাদেরকে প্রতিহত করেই বাংলাদেশকে অগ্রগতির পথে এগিয়ে নিয়ে যাব।

সম্মেলনে প্রধান বক্তা স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ (স্বাচিপ) কেন্দ্রীয় কমিটি’র সভাপতি ডা. মো. জামাল উদ্দিন চৌধুরী।রাজশাহী জেলার (স্বাচিপ) সভাপতি-অধ্যাপক ডা. চিন্ময় কান্তি দাস’র সভাপতিত্বে সম্মেলনে বিশেষ অতিথি বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির (স্বাচিপ) মহাসচিব-অধ্যাপক ডা. মো. কামরুল হাসান মিলন, বগুড়া-৭ আসন’র সংসদ সদস্য-অধ্যাপক ডা. মো. মোস্তফা আলম নান্নু, সিরাজগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য-অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল আজিজ, নাটোর-৪ আসনের সংসদ সদস্য-ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী, মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য-ডা. আবু সালেহ মোহাম্মদ নাজমুল হক (সাগর)। সঞ্চালনা করেন স্বাচিপ রাজশাহী মেডিকেল কলেজ’র সাধারণ-সম্পাদক অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান খান।

সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন বি.এম.এ রাজশাহী জেলার সাধারণ-সম্পাদক অধ্যক্ষ ডা. নওশাদ আলী, রাজশাহী মহানগর আ’লীগের সহ-সভাপতি ডা. তবিবুর রহমান শেখ, স্বাচিপ চাপাঁইনবাবগঞ্জ-সভাপতি ডা. গোলাম রাব্বানী, নাটোর জেলা স্বাচিপ-সভাপতি আব্দুল গণি, আ’লীগের স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য, যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটি’র কার্যনির্বাহী সদস্য এবং জেলা আ’লীগের সদস্য ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা, স্বাচিপ নওগাঁ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. আসেক হোসেন, স্বাচিপ রামেক সভাপতি-প্রফেসর খলিলুর রহমান, কেন্দ্রীয় কমিটি’র সদস্য-ডা. ইশরাক শাহরিয়ার, ডা. চিত্তরঞ্জন দাস, পুরবী রাণী দেবনাথ, সোহেল মামুন, কাজল কুমার কর্মকার, ডা. মিনহাজুল ইসলমা, ডা. জাবেব, ডা. কাশফিয়া আহমেদ ও দেওয়ান মেহেদী তমাল এবং ডা. সাঈদা শওকত জেনী প্রমুখ।

এরআগে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্য দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন এবং এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনসহ অন্যান্য অতিথিরা।
সম্মেলনের ১ম অধিবেশনের পর ২য় অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

Exit mobile version