স্বাধীনতার ৫৩ বছরে শিক্ষার্থীদের ভাবনা রাষ্ট্রব্যবস্থা দেশের সমৃদ্ধির জন্য কাজ করছে

আপডেট: মার্চ ২, ২০২৪, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী সামবিত সামি সাম্য। স্বাধীনতার ৫৩ বছর শেষে ৫৪ বছরে পরবে। এই শিক্ষার্থী জানিয়েছেন তাদের মতামত। দৈনিক সোনার দেশ থেকে নেওয়া হয়েছে স্বাক্ষাতকার।

স্বাধীনতার মুক্তিযুদ্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে এই শিক্ষার্থী বলেন, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে ভাবনা মানুষের আত্মবিশ্বাস, ও মুক্তির প্রতি আগ্রহের সাথে জড়িত। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সত্ত্বা পেয়েছে এবং এটি নির্দিষ্ট সময়ে ও স্থানে ব্যক্তিগত ও সামাজিক পরিবর্তনের জন্য ব্যবহৃত হয়েছে। এটি মানুষের আত্মবিশ্বাস ও নিজের অধিকার অর্জনের প্রেরণার্থে একটি গভীর সংগ্রাম। এই চেতনা বাস্তবায়নের সংগ্রাম চলমান।
রাষ্ট্র নিয়ে তিনি বলেন, রাষ্ট্র ভাবনা সমাজের প্রগতি, সুরক্ষা, ন্যায় এবং প্রজন্মের সমৃদ্ধি সহজে যেন সাধন করে। সমগ্র সমাজের হিতের প্রেক্ষিতে রাষ্ট্র ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত হয় এবং সার্বিক সন্তুষ্টিতের লক্ষ্যে কাজ করে। অবশ্যই, বাংলাদেশের বর্তমান রাষ্ট্রব্যবস্থা দেশের সমৃদ্ধির জন্য কাজ করছে।

র্তমান রাজনীতি নিয়ে তিনি বলেন, দেশের রাজনীতি ও রাজনীতিবিদরা দেশের সার্বিক উন্নয়নের জন্য জনগণের কল্যাণে কাজ করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে। তারই উদাহরণ হিসেবে আমরা দেখতে পায় মেট্রোরেল, পদ্মা সেতু, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, কর্ণফুলী টানেল, ঢাকা-কক্সবাজার ট্রেন প্রকল্পের মতো বড় বড় ও কল্পনাতীত কার্যক্রম।

তিনি শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে বলেন, মেধাবী নিয়ে ব্যবস্থা গড়ে তোলার দিকে অগ্রসর হচ্ছ্যে। কিন্তু এটি এখনও সম্পূর্ণরূপে পরিপূর্ণ নয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এখনো শিক্ষা ব্যবস্থার মান, সমগ্রতা এবং সমন্বয়ে অনেক কাজ প্রয়োজন। ব্যবহারিক জ্ঞানকে উদ্ধুদ্ধ করতে ও দক্ষ হিসেবে গড়ে তোলাই বর্তমান শিক্ষাব্যবস্থার লক্ষ হওয়া উচিত।

তিনি আরও বলেন, দেশের এই অগ্রযাত্রা এগিয়ে যাবে তখনই যখন মেধাবী যুবসমাজ দেশের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করে নিজেদের সেরাটা বিলিয়ে দেবে দেশের জন্য। আশা করি, আমাদের হাত ধরে দেশ অনেক সমৃদ্ধ হবে, জায়গা করে নেবে উন্নত বিশ্বেত দেশগুলোর সাথে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ