স্মার্ট ফোনের জন্য টয়লেট টিস্যু

আপডেট: ডিসেম্বর ২৭, ২০১৬, ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



টয়লেটের কর্ম সম্পাদনে টিস্যুর ব্যবহার নতুন নয়। উন্নত আর আধুনিক প্রতিটি টয়লেটেই এখন টিস্যু পেপারের ব্যবস্থা থাকে। তবে কোনো টয়লেটে যদি মানব শরীরের পাশাপাশি সঙ্গে থাকা স্মার্টফোনের জন্যও টিস্যু পেপারের ব্যবস্থা থাকতে দেখেন তবে! অবাক করা এই ব্যবস্থাই করেছে জাপানের নারিতা আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর।
সঙ্গের প্রয়োজনীয় যন্ত্রটিকে জীবাণুমুক্ত রাখতে টয়লেট ব্যবহারকারীদের জন্যে এমন অভিনব ব্যবস্থা করেছে বিমান সংস্থাটি। টিস্যুটির ব্যবহারে সচেতনতা বাড়াতে বলা হচ্ছে, উড়হ’ঃ ভড়ৎমবঃ ঃড় রিঢ়ব নবভড়ৎব ুড়ঁ ংরিঢ়ব অর্থাৎ ‘সোয়াইপ’ করার আগে ‘ওয়াইপ’ করতে ভুলবেন না। অর্থাৎ স্মার্ট ফোনটি স্পর্শ করার আগে সেটির স্ক্রিন এই বিশেষ টিস্যু পেপার দিয়ে পরিষ্কার করতে ভুলবেন না।
জাপানের বৃহৎ টেলিফোন কোম্পানি এনটিটি ডোকোমো এমন অভিনব টিসু পেপারটি আবিস্কার ও সরবরাহ করেছে। টিস্যুটি একেবারে সাদামাটাও নয়। এসব টিস্যুতে যাত্রীদের জন্যে রাখা কোম্পানিটির ওয়াই ফাই সুবিধার বিজ্ঞাপনও দেয়া হয়েছে। আছে ভ্রমণ সংক্রান্ত একটি অ্যাপের তথ্যও।
জাপানের নারিতা বিমানবন্দরে স্থাপনের পর বিশেষ টিস্যুটি কিভাবে ব্যবহার করতে হবে তার দিক নির্দেশনাও ইউটিউবে ছেড়েছে এনটিটি ডোকোমো। আর তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বেশ হাস্যরসেরও সৃষ্টি হয়েছে।
অবশ্য শরীরের বর্জ্য নিষ্কাশনের বিশেষ এই কাজের সুবিধায় নিত্য নতুন আবিস্কারের মাধ্যমে এমনিতেই সুনাম কুড়িয়েছে জাপান। এছাড়াও পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা রক্ষায় আধুনিক প্রযুক্তি আবিস্কার ও ব্যবহারের ক্ষেত্রেও এগিয়ে দেশটি। আর এখন এর সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে প্রয়োজনীয় চিরসঙ্গী স্মার্টফোন পরিস্কারের ব্যবস্থাও।
কোম্পানিটির দাবি, “টয়লেটের কমোডে যে পরিমাণ জীবাণু থাকে তার থেকেও ৫গুণ বেশি রয়েছে আপনার স্মার্টফোনের স্ক্রিনে।” আর তাই যাত্রীদের জীবাণুমুক্ত ভ্রমণ উপভোগ করাতে প্রতিষ্ঠানটির বিশেষ এই ব্যবস্থা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ