হজে গিয়ে ভিক্ষা, বাংলাদেশি গ্রেপ্তার

আপডেট: জুন ২৭, ২০২২, ২:১৬ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক :


হজ করতে সৌদি আরবে গিয়ে ভিক্ষায় নামার অভিযোগে এক বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করেছে সে দেশের পুলিশ।
মো. মতিয়ার রহমান নামের ওই ব্যক্তির বাড়ি মেহেরপুরের গাংনী উপজেলায়। ২২ জুন মদিনায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর বাংলাদেশ হজ মিশনের কর্মীরা থানায় মুচলেকা দিয়ে তাকে ছাড়িয়ে আনেন।

মতিয়ার সৌদি আরবে যান ধানসিঁড়ি ট্র্যাভেল এয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে। গত ২৫ জুন ওই এজেন্সিকে কারণ দর্শানোর নোটিস দিয়েছেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উপসচিব আবুল কাশেম মুহাম্মদ শাহীন।

এই ধরনের ঘটনা আগে কখনও ‘শোনেননি’ জানিয়ে সোমবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “এজেন্সি এখনও কোনো জাবাব দেয়নি। অপেক্ষা করে কঠিন অ্যাকশন নেওয়া হবে।”

ধানসিঁড়ি ট্র্যাভেলকে পাঠানো নোটিসে বলা হয়, “আপনার এজেন্সির একজন হজযাত্রী মো. মতিয়ার রহমান মদিনা শরীফে ভিক্ষা করতে গিয়ে সৌদি পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয় এবং এ ঘটনা জানার পর বাংলাদেশ হজ মিশনের একজন কর্মী থানায় মুচলেকা দিয়ে তাকে ছাড়িয়ে আনেন।”

সেখানে বলা হয়, “উক্ত হাজী ব্যাগ ছিনতাই হওয়ার নাটক করে ভিক্ষাবৃত্তির কারণে গ্রেপ্তার হওয়ায় মদিনা তথা সৌদিতে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি দারুণভাবে ক্ষুণ্ন হয়েছে। এরূপ কার্যক্রমের কারণে সুষ্ঠু হজ ব্যবস্থাপনা ব্যাহত হয়েছে এবং সরকারের হজ ব্যবস্থাপনা সংশ্লিষ্ট নির্দেশনা উপেক্ষিত হয়েছে, যা হজ ও ওমরাহ ব্যবস্থাপনা আইনের পরিপন্থি।”

ওই হজযাত্রীকে ‘গাইড করার মত কোনো মোয়াল্লেম এবং বসবাসের বাড়ি বা হোটেলও ছিল না’ বলে নোটিসে উল্লেখ করা হয়।
এ ঘটনায় ধানসিঁড়ি এজেন্সির বিরুদ্ধে হজ ও ওমরাহ ব্যবস্থাপনা আইনের ১৩ ধারা অনুয়ায়ী কেন প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তিন দিনের মধ্যে তার জবাব দিতে বলা হয় নোটিসে।

ধানসিঁড়ি ট্র্যাভেলসের মালিকের নাম মো. আল মামুন। মন্ত্রণালয়ের নোটিস বা সৌদি আরবের ঘটার বিষয়ে তার বক্তব্য বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম জানতে পারেনি।
এজেন্সির ওয়েবসাইটে দেওয়া মোবাইল নম্বরে ফোন করলে কেউ ধরেননি। এসএমএস পাঠিয়েও তাদের সাড়া মেলেনি।

হজ এজেন্সিস অব বাংলাদেশ (হাব) এর সভাপতি শাহাদাত হোসেন তসলিম বলেছেন, এ ঘটনায় দেশের সম্মান ‘ক্ষুণ্ন হয়েছে’।
বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, “আমি হজে গিয়ে সেখানে অন্য দেশের কিছু নাগরিককে ভিক্ষা করতে দেখেছি। কিছু বাংলাদেশিও পেয়েছি। আমার ধারণা ছিল, ওই দেশে সেসব বাংলাদেশি আছেন, তারা হয়ত এটা (ভিক্ষা) করছেন। কিন্তু হজে গিয়ে এভাবে ভিক্ষা করা!”

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে সৌদি আরবে ৮ জুলাই হজ হবে এবার। বাংলাদেশ থেকে এবার মোট ৫৭ হাজার ৫৮৫ জন বাংলাদেশির হজে যাওয়ার সুযোগ মিলেছে।

তাদের মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাচ্ছেন চার হাজার এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫৩ হাজার ৫৮৫ জন। বেসরকারিভাবে এবছর ৩৫৯টি হজ এজেন্সির মাধ্যমে সৌদি আরবে যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন হজযাত্রীরা।
তথ্যসূত্র: বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ