হযরত মহম্মদকে ‘অসম্মান’! ভেঙে ফেলা হল স্যামসংয়ের বিলবোর্ড, অগ্নিগর্ভ পাকিস্তানের করাচি

আপডেট: জুলাই ২, ২০২২, ৮:০৮ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


হযরত মহম্মদকে ‘অপমান’ করার অভিযোগ তুলে এবার উত্তাল হয়ে উঠল পাকিস্তানের করাচি। অভিযোগ তোলা হল মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা স্যামসংয়ের বিরুদ্ধে। যার জেরে ভেঙে ফেলা হয় এই সংস্থার বিলবোর্ড। ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ওই কোম্পানির ২৭ জন কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, করাচির এক নামী শপিং মলের বাইরে স্যামসংয়ের একটি ওয়াই-ফাই ডিভাইস লাগানো হয়েছিল। অভিযোগ, সেই ডিভাইস থেকে হজরত মহম্মদকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য ভেসে আসে। আর তাতেই ক্ষোভের আগুন জ্বলে ওঠে করাচিতে। প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বহু মানুষ। শুরু হয় ভাঙচুর। ভেঙে দেওয়া হয় বিলবোর্ডও। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে নামে বিশাল পুলিশবাহিনী।

বিক্ষোভের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তে উত্তেজনা আরও চরমে ওঠে। অশান্তি রুখতে শপিং মল থেকে দ্রুত ওই ওয়াই-ফাই ডিভাইসটি সরিয়ে ফেলে পুলিশ। ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামে স্যামসং পাকিস্তানও। টুইট করে এই বিতর্কে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে তারা। একটি বিবৃতি দিয়ে জানায়, ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করা তাদের উদ্দেশ্য নয়।

এক্ষেত্রে সবসময়ই নিরপেক্ষ থাকে তারা। কোম্পানির তরফে আরও বলা হয়, “প্রতিটি ধর্মকেই আমরা সমান ভাবে সম্মান করি। একইভাবে ইসলাম ধর্মকেও সম্মান করি।” সেই সঙ্গে নিশ্চিত করা হয়, এমন ঘটনা কীভাবে ঘটল, তার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করা হবে।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ