হরতালের প্রভাব পড়েনি রাজশাহীতে, স্বাভাবিক জীবনযাত্রা

আপডেট: অক্টোবর ২৯, ২০২৩, ১১:৫৯ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:


বিএনপি-জামায়াতের ডাকা হরতালে কোনো প্রভাব পড়েনি রাজশাহীতে। বাসসহ অন্য সব ধরনের যানবাহন চলচল করছে সড়কে। আগের মতোই খোলা ছিল নগরীর ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানগুলো। ফলে স্বাভাবিক ছিল নগরবাসীর জীবনযাত্রা। হরতাল ডাকা দল দুটির নেতাকর্মীরা মাঠে না থাকলেও নগরীর বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান নিতে দেখা গেছে আওয়ামীলীগ ও এর অঙ্গসংগঠনগুলোর নেতাকর্মীদের।

হারতালের কারণে রোবাবর (২৯ অক্টোবর) সকালের দিকে বাস চলাচল না করলেও বেলা ১১টার দিকে আন্তঃজেলা বাসগুলো রাজশাহী থেকে ছেড়ে যায়। এ ভাবে রাজশাহীতে আসতে দেখা গেছে বিভিন্ন জেলার বাস। এছাড়া সকাল নয়টার দিকে শ্যামলী পরিবহণ ও দেশ ট্রাভেলস বাস ঢাকার উদ্দেশ্যে রাজশাহীতে ছেড়ে আসে। তারা শিরোইল বাস কাউন্টারে যাত্রীদের নামিয়ে দেয়। এরপরে চাঁপাইনবাবগঞ্জের উদ্দেশ্যে বাসগুলো আবার যাত্রা করে।

বাসে আসা কয়েকজন যাত্রী জানায়, সড়কে কোনো সমস্যা হয়নি। সরাসরি বাস ঢাকা থেকে ছেড়ে রাজশাহীতে চলে আসে। সড়ক ফাঁকা থাকলেও গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সমস্যদের দেখা গেছে। এছাড়া নগরীতে ছোট দোকানপাট ছাড়াও শপিংমল খোলা ছিল। দোকানগুলোতে তুলনামূলক ক্রেতাদের উপস্থিতি কম ছিল। সড়কজুড়ে ছোট ছোট যানবাহনের মধ্যে সিএনজি, হিউম্যান হলার, ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা চলতে দেখা গেছে।

বাসে থাকা নাজমুল ইসলাম নামের এক যাত্রী জানান, ভদ্রা মোড় থেকে অল্প বাস ছাড়ছে। রাজ এন্টারপ্রাইজের এই বাসটি নাটোর পর্যন্ত যাবে। নাটোরে নাকি রংপুরের বাস পাওয়া যাবে। নাটোরে নেমে বাসে উঠে রংপুর যাব।

রাজশাহী সড়ক পরিবহন গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মতিউল হক টিটো বলেন, বাস চলাচল করছে। আমাদের সমস্ত টিকিট কাউন্টার খোলা আছে। যাত্রীরা নিজ নিজ গন্তেব্যে যাত্রা করছেন।
দুপুরে রাজশাহী নগরীর বিনোদপুর, কাজলা, তালাইমারী, ভদ্রা মোড়, সাহেববাজার, উপশহর মোড়, গোরহাঙ্গা নওগাঁ সড়ক, শিরোইল বাস টার্মিনাল ও রেলস্টেশনের যাত্রীদের দেখা গেছে। সকালে যাত্রীদের উপস্থিতি তুলনামূলক কম থাকলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে বাড়তে থাকে যাত্রীদের সংখ্যা।

ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা চালক মো. রাজিব বলেন, সকাল ৯টার দিকে অটোরিক্সা বের করেছেন তিনি। সকালে লোকজন কম ছিল। দুপুর ১২টার দিক থেকে ভালোই লোকজন দেখা যায়। দুপুরের দিকে মানুষ আর যানবাহনের কারণে তার মনে হয়নি হরতাল। শুধু নামেই হরতাল। সব গাড়ি চলছে। মানুষ আর হরতাল মানে না।

অপরদিকে হরতালকে কেন্দ্র করে সতর্ক অবস্থানে ছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। নগরীর বিভিন্ন মোড়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অবস্থান নয়। বেলা ১২টায় রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে এসে শেষ হয়। সেখানে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বক্তব্য দেন। এর আগে সকাল ১১টার দিকে শিরোইল এলাকায় শ্রমিকলীগ।

এছাড়া নির্ধারিত সময়ে রাজশাহী থেকে সব রুটে ট্রেন ছেড়ে গেছে বলে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার আব্দুল করিম জানান, ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। নির্ধারিত সময়ে রাজশাহী থেকে সব ট্রেন ছেড়ে যাচ্ছে। একইভাবে বিভিন্ন ট্রেন রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে ফিরে আসছে। ট্রেন সিডিউল মতো চলাচল করছে। সকালে তিতুমীর, সাগরদাঁড়ি, বনলতা এক্সপ্রেস সহ বেশ কয়েকটি ট্রেন ছেড়ে গেছে।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) জামিরুল ইসলাম বলেন, কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর নেই। হরতালকে কেন্দ্র করে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ