হল্যান্ডকে ছাড়া বিশ্বকাপ?

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১, ২০১৭, ১:৪৯ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


সর্বশেষ ইউরোয় ছিল না হল্যান্ড। আর কদিন পরেই রাশিয়ায় বসবে বিশ্বকাপের আসর। ইউরোর পর এখন বিশ্বকাপেও ‘কমলাবাহিনী’ থাকতে পারবে কি না, এ নিয়ে দেখা দিয়েছে ঘোর শঙ্কা।
বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ইউরোপ অঞ্চলে গ্রুপ ‘এ’র পয়েন্ট তালিকার ৩ নম্বরে আছে হল্যান্ড। ৩ পয়েন্ট বেশি নিয়ে যুগ্মভাবে শীর্ষে আছে ফ্রান্স ও সুইডেন। শুক্রবার ভোরে (বাংলাদেশ সময়) ফ্রান্সের বিপক্ষে ম্যাচে হেরে গেলেই ২০০২ সালের পর প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে থাকবে না কমলা জার্সিরা।
দুঃস্বপ্ন এখন তাড়া করে ফিরছে ডাচ-শিবিরে। শক্তিশালী ফ্রান্সের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সবাইকে ‘বিশ্বাস’ ধরে রাখতে বললেন হল্যান্ড তারকা আরিয়েন রোবেন, ‘ফ্রান্স বেশ শক্ত প্রতিপক্ষ। কিন্তু তাদের নিয়ে না ভেবে আমাদের নিজেদের খেলায় মনোযোগী হতে হবে। আমরা যে জিততে পারি, সেই বিশ্বাসটা ধরে রাখতে হবে।’
১৯৭৪ ও ১৯৭৮ সালের রানার্সআপ দলটি বিরাশির স্পেন ও ছিয়াশির মেক্সিকো বিশ্বকাপে আসতে পারেনি। ১৯৯০ সালে বিশ্বকাপে ফিরে টানা তিনটি আসর খেলে (৯০, ৯৪, ৯৮) ২০০২ সালে শেষবারের মতো বাছাইপর্বেই আটকে গিয়েছিল তারা। সর্বশেষ দুটি বিশ্বকাপে তো রীতিমতো আলোই ছড়িয়েছে তারা। ২০১০ বিশ্বকাপের ফাইনালিস্ট হল্যান্ড ২০১৪-তে হয়েছিল তৃতীয়। আর্জেন্টিনার কাছে টাইব্রেকারে হেরে যাওয়ার আগে অনেকেই হল্যান্ডের হাতেই কিন্তু কাপটা দেখেছিল। সেই হল্যান্ডই যদি পরের বিশ্বকাপে খেলতে না পারে, তাহলে সেটা হবে ফুটবলপ্রেমীদের জন্য বেশ হতাশার।
বাছাইপর্বের বড় ম্যাচে শুক্রবার সকালে মন্টিভিডিওতে আর্জেন্টিনা খেলবে উরুগুয়ের বিপক্ষে। দায়িত্ব নেওয়ার পর আর্জেন্টিনার নতুন কোচ হোর্হে সাম্পাওলির এটি প্রথম ম্যাচ। চোটের কারণে এই ম্যাচে উরুগুয়ে পাচ্ছে না লুইস সুয়ারেজকে। পোর্তো অ্যালেগ্রিতে ব্রাজিল খেলবে ইকুয়েডরের সঙ্গে।-প্রথম আলো অনলাইন