হল না শেষরক্ষা, এবার আমেরিকায় থাবা বসাল ‘ওমিক্রন’

আপডেট: ডিসেম্বর ২, ২০২১, ১:১৯ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


ভোলবদল করে আরও বিপজ্জনক হয়েছে করোনা ভাইরাস। এবার বিশ্বে আতঙ্কের আরও এক নাম হয়ে দাঁড়িয়েছে আণুবীক্ষণিক জীবটির নয়া রূপ ‘ওমিক্রন’(Omicron)| । এহেন সময়ে আফ্রিকার দেশগুলি থেকে এবার আমেরিকায় হানা দিয়েছে করোনা ভাইরাসের এই নতুন স্ট্রেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মুখ্যস্বাস্থ্য উপদেষ্টা অ্যান্টনি ফাউচি (অহঃযড়হু ঋধঁপর) জানিয়েছেন, সাউথ আফ্রিকা থেকে ক্যালিফোর্নিয়ায় ফেরত আসা এক ব্যক্তির শরীরে ওমিক্রন পাওয়া গিয়েছে। উদ্বেগ বাড়িয়ে ফাউচি আরও জানান, ওই ব্যক্তি করোনা টিকার দু’টি ডোজই নিয়েছেন, তারপরও তাঁর শরীরে হানা দিয়েছে

এই ভাইরাস। বর্তমানে আক্রান্ত ওই ব্যক্তির শরীরে হালকা উপসর্গ দেখা দিয়েছে, তবে তাঁর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল। এই ঘটনার পর এক বিবৃতিতে নাগরিকদের করোনা টিকা ও বুস্টার ডোজ নেওয়ার আরজি জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। এদিকে, ওমিক্রন আতঙ্কে আফ্রিকার দেশগুলির উপর ভ্রমণ বিষেধাজ্ঞা জারি করার বিরোধিতা করেছেন রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস।

প্রসঙ্গত, গতবছরই করোনার নয়া স্ট্রেন আরও ঘাতক হবে বলে জানিয়েছিলেন ফাউচি। তিনি বলেছিলেন, মিসলস বা হামের টিকা যেমন মানুষকে সারাজীবন সুরক্ষা দেয়, করোনার ভ্যাকসিনে তেমনটা হওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ, সার্স-কভ-২ আরএনএ ভাইরাস বারে বারেই জিনের গঠন বদলাচ্ছে। ফলে ধন্দে পড়তে হচ্ছে বিজ্ঞানীদের। এই ভাইরাসের প্রতিটি স্ট্রেন একে অপরের থেকে আলাদা। যেসব স্ট্রেন থেকে ভ্যাকসিন বানানো হচ্ছে তার বাইরেও করোনার একাধিক সংক্রামক স্ট্রেন রয়েছে।

তাই যে কোনও একটি স্ট্রেন থেকে বানানো ভ্যাকসিন সাময়িকের স্বস্তি দেবে, চিরতরের নয়।
উল্লেখ্য, বিশ্বে ক্রমশ বাড়ছে করোনা নতুন প্রজাতিতে আক্রান্তের সংখ্যা। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ফেরা নেদারল্যান্ডসে যে ৬৬ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য দেওয়া হয়েছিল, তাঁদের মধ্যে ১৩ জনের শরীরে ওমিক্রনের স্ট্রেন মিলিছে বলে খবর। করোনার নতুন ভ্যারিয়্যান্ট ওমিক্রন সংক্রমণ আটকাতে ইতিমধ্যেই দেশের আন্তর্জাতিক সীমান্তে নিষেদ্ধাজ্ঞা জারি করার পথে ইজরায়েল।

প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট জানান, সোমবার রাত থেকে আগামী ১৪ দিন এই নিয়ম জারি থাকবে।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন