হাতিয়ায় দু’পক্ষের গুলি বিনিময়ে ৩ ডাকাত নিহত

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২, ১২:৩৪ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক:


নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার হরণী ইউনিয়নের দুর্গম চর ঘাসিয়া এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই ডাকাত দলের মধ্যে সংঘর্ষ ও গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। এতে নিহত হয়েছেন তিন ডাকাত সদস্য। ঘটনাস্থল থেকে তিনটি একনলা বন্দুক, দুই রাউন্ড গুলি, ছয়টি রামদা’, পাঁচটি বল্লম ও অনেকগুলো লোহার রডসহ পাঁচজনকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে নিহত তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে হাতিয়া থানা পুলিশ।

শুক্রবার সকালে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।
এর আগে, বুধবার দিনগত রাত ৩টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত উপজেলার ঘাসিয়ার চর এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন- উপজেলার মেঘনা নদী সংলগ্ন চর ঘাসিয়ার বাসিন্দা কবির (৩৬), সাহারাজ (৩৭) ও নবীর উদ্দিন ওরফে নূর নবী (৩৬)। তারা ডাকাত ফখরুল গ্রুপের সদস্য। হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমির হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, হাতিয়া এবং জেলার মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন একটি দ্বীপ চর ঘাসিয়া। সেখানে দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে খোকন ও তার ভাই ফখরুল ডাকাতের মধ্যে বিরোধ চলছে। কিছুদিন আগে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা খোকনকে আটক করলে চরটির দখল নেন ফখরুল। কয়েকদিন আগে কারাগার থেকে জামিনে বের হয়ে ফিরে আসেন খোকন। পরে চর ফের নিজের নিয়ন্ত্রণে নিতে চাইলে উভয়পক্ষের মধ্যে বিরোধ শুরু হয়। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার ভোরে চর ঘাসিয়ায় উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। এতে ফখরুল গ্রুপের তিনজন নিহত হন। খবর পেয়ে কোস্টগার্ড সদস্যরা চরে অভিযান চালিয়ে অস্ত্র ও গুলিসহ পাঁচজনকে আটক করে।

হাতিয়া কোস্টগার্ডের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট সাফিউল কিঞ্জল জানান, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ