হামলায় অটোগাড়ি ব্যবসায়ী মামুন আহত

আপডেট: ডিসেম্বর ৬, ২০১৬, ১১:২৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :



নগরীতে আটোগাড়ি ব্যবসায়ী আল মামুনের (৩২) ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে আহত করার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় নওদাপাড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার সময় নওদাপাড়া বাজার মোড়ে আহত মামুন শহরে আসার উদ্দেশে দাঁড়িয়েছিল। এসময় কোন কারণ ছাড়াই ওই এলাকার আনসার আলীর ছেলে মানিক (২৮) এবং তার দুই বন্ধু মো. মিলন ও মো. পলাশ তাকে পেছন থেকে হাতুড়ি, ইট ও রড দিয়ে আঘাত করে আহত করে। এরপর স্থানীয় লোকজন তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। কিন্তু আহতের অবস্থার অবনতি হওয়ায় ওই ওয়ার্ডের কর্তব্যরত চিকিৎসক ৮ নম্বর ওয়ার্ডে হস্তান্তর করেন। এছাড়া চিকিৎসকরা আহতকে সিটি স্ক্যান করার  জন্য পরামর্শ দেন।
জানা যায়, ঘটনার সময় আহতের নিকট থাকা অভিযুক্তকারীরা প্রায় ১২ হাজার টাকা ও স্যামসাং মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। আহত আল মামুন তার পরিবারের উপার্জনের একমাত্র পথ। বর্তমানে আহতের পরিবার চরম কষ্টে জীবন পরিচালনা করেছেন।
এবিষয়ে আহতের বাবা ওয়াহাব ইসলাম জানান, তার ছেলে মামুন অটোগাড়ির ব্যবসা করেন। অটোগাড়ির ব্যাটারির পাওনা টাকা পরিশোধের জন্য ১১ হাজার ৮০০ টাকা নিয়ে শহরের যাওয়ার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর নওদাপাড়া বাজারে গেলে তারা পেছন থেকে হঠাৎ মারধর শুরু করে। এতে মাথায় আঘাত পায়। বর্তমানে রামেক হাসপাতালের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি আছে। চিকিৎসার জন্য প্রাথমিক অবস্থায় সিটি স্ক্যান করার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসকরা বলেছেন।
এবিষয়ে আক্রমণকারী মানিকের ভাই ১৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনি বলেন, এ ঘটনা আমি শুনেছি। আমার চেম্বারে আহত আল মামুন এসেছিল। তখন আমি না থাকায় দেখা হয় নি। এর বেশি কিছু আমি জানি না।
এবিষয়ে শাহ মখদুম থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিল্লুর রহমান বলেন, এ ঘটনা নিয়ে থানায় এখন পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ করেন নি। তবে যদি এ ঘটনায় অভিযোগ করলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনিভাবে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ