হিজাব পরায় বাস থেকে বিতাড়িত ছাত্রী

আপডেট: জানুয়ারি ১৬, ২০১৭, ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


হিজাবে মুখ ঢাকা থাকায় স্কুল বাস থেকে নামিয়ে দেয়া হল ছাত্রীকে। আমেরিকার জনা বকির উটাহ শহরের প্রোভো জেলার টিম্প ভিউ হাইস্কুলের পড়ুয়া। গত মাসে একদিন স্কুল বাসে উঠে হঠাৎই বিপদে পড়ে সে। বাসে ওঠার পরেই চালক সবার সামনে ইন্টারকমে তাকে লক্ষ্য করে একটি নির্দেশ দেন। বলেন,‘ এই যে, কালো হিজাব আর নীল রঙের স্কার্ফ গায়ে মেয়েটি। বাস থেকে নেমে যাও। তুমি এই বাসের যাত্রী নও।’ বলার পরেই কাঁদতে কাঁদতে বাস থেকে নেমে আসে ছাত্রীটি। পরে জানায়, সেদিন সকলের সামনে এই কথা শুনতে খারাপ লেগেছিল তার। রোজ হিজাব গায়ে চাপানো তার ধর্মীয় অধিকারের মধ্যে পড়ে। সেটায় কেউ হস্তক্ষেপ করলে মুশকিল। বলে “আমি রোজ পোষাকের সঙ্গে মিলিয়ে স্কার্ফ পরি, সেটাও এত আপত্তির কারণ হয়ে দাঁড়াবে, বুঝিনি”। ঘটনার পরেই ছাত্রীর বাবা মা কথা বলেন স্কুলের সঙ্গে। স্কুল জানায়, এমন আর হবে না। কিন্তু গত শুক্রবার যখন ফের বাসে উঠে যায় ছাত্রী। তখন ওঠার পথেই হাত দিয়ে পথ আটকান চালক। বলেন, এই বাসে তাঁর স্থান হবে না। ফের স্কুলের কাছে যান ছাত্রীর বাবা মা। স্কুলের তরফে এবার বলা হয়, ছাত্রীটি রোজ এই বাসে করে যায় না। তাই চালকের অপরিচিত মুখ হওয়ায় ওকে বাসে উঠতে বাধা পেতে হয়েছিল। যদিও, ছাত্রীটির পরিবারের দাবি এই স্কুলে মিডল স্ট্যান্ডার্ডের পঠনপাঠন শুরু হওয়ার সময় থেকেই সে বাসে যাতায়াত করে। যদিও গোটা ঘটনার জন্য তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ।  – আজকাল