হিজাব বিতর্কে পাকিস্তানের মন্ত্রীকে একহাত নিলেন আসাদউদ্দিন ওয়াইসি

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২২, ১২:৪০ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


হিজাব বিতর্কে তোলপাড় ভারতের দক্ষিণের রাজ্য কর্ণাটক। ক্লাসে মুসলিম মেয়েদের হিজাব পরে ঢুকতে না দেওয়ার প্রতিবাদে সরব হয়েছেন বহু রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব থেকে সমাজকর্মী।

এই ঘটনা ঘিরে কর্ণাটকের বর্তমান পরিস্থতি উত্তাল হওয়ায় স্কুল ও কলেজ তিনদিনের জন্য বন্ধ রাখার বিধানও দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাই। এই ঘটনার আঁচ রাজ্য-দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও পৌঁছেছে।

শান্তিতে নোবেলজয়ী এবং নারী অধিকার কর্মী মালালা ইউসুফজাই এই ঘটনাকে ভয়ংকর বলে অভিহিত করেছেন। কর্ণাটকের হিজাব বিতর্ক নিয়ে টুইট করেছেন পাকিস্তানের মন্ত্রীরাও।

এবার তাদের পাল্টা জবাব দিলেন লোকসভার সদস্য ও অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসলিমিন (মিম)-এর প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি।

বুধবার উত্তর প্রদেশে আসাদউদ্দিন ওয়াইসি একটি নির্বাচনি প্রচারে গিয়েছিলেন। সেই জনসভা থেকে তিনি বলেন, “পাকিস্তানের মন্ত্রীদের জন্য আমার একটি বার্তা রয়েছে–“নিজের চরকায় তেল দিন”।’

তিনি আরও বলেন, ‘পাকিস্তানে মালালার ওপর হামলা হয়েছিল এবং তাকে পাকিস্তান ছাড়তে হয়েছিল। পাকিস্তানের সংবিধান একজন অমুসলিমকে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার অনুমতি দেয় না।

পাকিস্তানের প্রতি আমার পরামর্শ যে ইধার মাত দেখো (এদিকে তাকাবেন না)। আপনাদের নিজেদের অনেক সমস্যা রয়েছে। সেদিকে দেখুন। বালুচের দিকে তাকান। এটা আমাদের দেশ। এটা আমাদের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। আমাদের সমস্যায় নাক গলাবেন না। আপনাদের নাকে ব্যথা হবে।’

পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি বলেছিলেন, এই হিজাব নিয়ে মুসলিম মেয়েদের শিক্ষা থেকে বঞ্চিত করা মৌলিক মানবাধিকারের গুরুতর লঙ্ঘন। কাউকে এই মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা এবং হিজাব পরার জন্য তাদের ভয় দেখানো সম্পূর্ণ নিপীড়নমূলক।

বিশ্বকে বুঝতে হবে যে মুসলমানদের ঘেটো করার জন্য ভারতের একটি রাষ্ট্রীয় পরিকল্পনার অংশ এটি।

ভারতের অবস্থা ‘ভয়ংকর’ আখ্যা দিয়ে পাকিস্তানের তথ্য এবং স¤প্রচার মন্ত্রী ফাওয়াদ হুসেন বলেছেন, ‘অস্থির নেতৃত্বের অধীনে ভারতীয় সমাজ দ্রæত গতিতে হ্রাস পাচ্ছে। হিজাব পরা একটি ব্যক্তিগত পছন্দ।

অন্য যেকোনও পোশাক নাগরিকরা যেমন স্বাধীনভাবে পরতে পারেন সেরকম।’
তথসূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ