হিটলারের ‘গণবিধ্বংসী অস্ত্রটি’ উঠছে নিলামে

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৭, ১২:০১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



এডলফ হিটলারের ব্যক্তিগত টেলিফোনটি নিলামে উঠছে; এই যন্ত্রের মাধ্যমে জার্মান একনায়কের হত্যার নির্দেশনা যেত বলে একে ‘গণবিধ্বংসী অস্ত্র’ আখ্যায়িত করা হচ্ছে।
হিটলারের এই লাল টেলিফোনটি এই সপ্তাহেই যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডে নিলামে উঠতে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ শেষে ১৯৪৫ সালে বার্লিনে হিটলারের বাংকারে এই লাল টেলিফোনটি পাওয়া গিয়েছিল।
বিবিসি বলছে, সোভিয়েত রাশিয়ার সৈন্যরা টেলিফোনটি পেয়েছিল। যুদ্ধে জার্মানির আত্মসমর্পণের পর টেলিফোনটি ব্রিটিশ ব্রিগেডিয়ার স্যার র‌্যালফ রেইনারকে দিয়েছিল রাশিয়া।
ব্রিগেডিয়ার রেইনারের ছেলের কাছ থেকে কিনে এটি নিলামে তুলছে ‘আলেকজান্ডার হিস্টোরিকাল অকশন’। এই নিলাম ঘর জানিয়েছে, নিলামে ডাক শুরু হবে ১ লাখ ডলার থেকে। তারা আশা করছে, নিলামে হিটলারের এই লাল টেলিফোনটির দর অন্তত তিন লাখ ডলারে উঠবে।
এই টেলিফোনের ঐতিহাসিক গুরুত্ব তুলে ধরতে গিয়ে ‘আলেকজান্ডার হিস্টোরিকাল অকশন’র কর্মকর্তা বিল পানাগোপুলস বলেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে অসংখ্য মানুষকে হত্যার নির্দেশ দিতে দিয়েছিলেন নাৎসি নেতা হিটলার, যার মধ্েয বহু নির্দেশ গেছে এই টেলিফোনটির মাধ্যমে।
“তাই একে গণবিধ্বংসী অস্ত্র বলা যায়।”- বিডিনিউজ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ