‘হিল পরা বানর’: মিশেল ওবামাকে নিয়ে বর্ণবাদী মন্তব্যে ক্ষোভ

আপডেট: নভেম্বর ১৫, ২০১৬, ১১:৩৩ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক
ফার্স্টলেডি মিশেল ওবামাকে নিয়ে রূঢ় বর্ণবাদী মন্তব্যে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে।
দেশটির অলাভজনক একটি গোষ্ঠীর পরিচালক পামেলা রামসে টেইলর ও ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের একটি ছোট টাউনের মেয়র বেভারলি হোয়ালিং এসব মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে, খবর ওয়াশিংটন পোস্টের।
এনবিসি অনুমোদিত ডব্লিউএসএজেড এর প্রতিবেদনে বলা হয়, ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর মিশেল ওবামার জায়গায় মেলানিয়া ট্রাম্প আসায় ক্লে কাউন্টি ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের পরিচালক টেইলর এক ফেইসবুক মন্তব্যে বলেন, “হোয়াইট হাউসে অভিজাত, সুন্দরী ও সম্ভ্রান্ত ফার্স্টলেডি ফিরে আসা অত্যন্ত স্বস্তিদায়ক হবে। হিল পরা একটি বানরকে দেখতে দেখতে আমি ক্লান্ত।”
ওই সংবাদ স্টেশনটির প্রতিবেদনে বলা হয়, ক্লে টাউনের মেয়র হোয়ালিং টেইলরের মন্তব্যের জবাবে বলেন, “আমার দিনগুলো মধুর হয়ে উঠেছে।” পরে তাদের এই মন্তব্যগুলো মুছে দেয়া হয়, কিন্তু ওই পোস্টের ইমেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে। ওই দুই নারীকে তাদের পদ থেকে অপসারণের পক্ষে এক অনলাইন পিটিশনে সোমবার বিকেলের মধ্যে ১৪ হাজার স্বাক্ষর জমা পড়ে। চার্লসটন গেজেট-মেইল জানিয়েছে, ঘটনার পর দুই নারীর ফেইসবুক পেইজই সরিয়ে নেয়া হয়েছে। ওই দুই নারী তাদের বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন।
ওয়াশিংটন পোস্টকে দেয়া এক বিবৃতিতে হোয়ালিং দাবি করেছেন, তার মন্তব্য কোনোভাবেই বর্ণবাদী নয়।
তিনি বলেন, “হোয়াইট হাউসে পরিবর্তন হওয়ায় আমার দিনগুলোতে যে পরিবর্তন এসেছে তাই বোঝাতে চেয়েছি আমি! এতে কষ্টকর কোনো অনুভুতি হয়ে থাকলে আমি সত্যি দুঃখিত! আমাকে যারা চিনেন, তারা জানেন, আমি কোনোভাবেই বর্ণবাদী না !”
টেইলরের সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি, তবে ডব্লিউএসএজেড এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফেইসবুকের মাধ্যমে তিনিও ক্ষমা প্রার্থনা করেছিলেন।
অঙ্গরাজ্য ও কেন্দ্রের তহবিলে পরিচালিত ক্লে কাউন্টি ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের এক প্রতিনিধি জানিয়েছেন, পরিচালকের পদ থেকে টেইলরকে ‘অপসারণ’ করা হয়েছে।
অপরদিকে ক্লে টাউনের কাউন্সিলম্যান জ্যাসন হুবার্ড চার্লসটন গেজেট-মেইলকে জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে কাউন্সিলের এক বৈঠকে টাউন কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি নিয়ে আলোচনা করবে।- বিডিনিউজ