হেমন্ত এসেছে আমার দুয়ারে

আপডেট: ডিসেম্বর ৩, ২০২১, ১২:০৩ পূর্বাহ্ণ

রাশেদা খালেক:


হেমন্ত এসেছে কুয়াশার চাদর জড়িয়ে
ঘাসের ডগায় ধানের শিষে শিশিরের ফোটা ফেলে ফেলে
হেমন্ত তুমি এসো আমার দুয়ারে ঘোমটা খুলে।
তোমার ঐ সোনাগলা রোদ্দুর ছড়িয়ে দাও
শুধু আমার দুয়ারে নয়, বিশ্বের কোণে কোণে
যেখানে যত আঁধার আছে, আছে পঙ্কিলতা
আলোকস্নানে শুচি করে দাও সকল আবিলতা কুটিলতা।

করোনা ভাইরাসের মরণকামড় কেড়ে নিল বিশ্বের অর্ধকোটিরও বেশি প্রাণ
সন্ত্রাস ও সাম্প্রদায়িকতার ভয়াল থাবায় কতশত জীবন হলো বলিদান।
হেমন্ত তোমার দহন আলোয় পুড়িয়ে দাও উড়িয়ে দাও
যন্ত্রণাকাতর জীবনের গ্লানিময় ছবিখানি
বয়ে আনো জীবনের শান্তি স্বস্তির পরশমণি।
হেমন্তলক্ষ্মীর আগমনে গোলাভরা ধানে কৃষক মাতোয়ারা
তোমারে বরিতে নবান্ন উৎসবে মেতেছে বাংলার বধূরা।
হেমন্তিকা তুমি এসো বিজয়লক্ষ্মীর বেশে
সোনার আলোয় ভরিয়ে দাও আমার দেশ আমার বিশ্বকে।