১৫ বছর পর ভাটিয়ারি কোর্সে খেলবেন সিদ্দিকুর

আপডেট: মার্চ ২৩, ২০১৭, ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক



বিশ্বের অনেক বড় বড় গলফ কোর্স এখন দাপিয়ে বেড়ান সিদ্দিকুর রহমান। বড় সাফল্য পাওয়া এ কোর্সগুলোর চেয়ে চট্টগ্রামের ভাটিয়ারি গলফ কোর্সটা তার কাছে কম আবেগের নয়। ১৫ বছর আগে যখন তিনি গলফের পেশাদার দুনিয়ায় প্রবেশ করেননি তখন এই ভাটিয়ারি কোর্সে খেলেছেন।
২০০৩ সালের পর থেকে অনেক দেশ আর অনেক কোর্সে খেললেও একবারও সিদ্দিকুর রহমানের পা পড়েনি ভাটিয়ারি কোর্সে। দীর্ঘদিন পর স্মৃতিমাখা সেই কোর্সে খেলতে নামবেন বাংলাদেশের সেরা এ গলফার। ভাটিয়ারিতে কি করে খেলবেন সিদ্দিকুর? তিনি প্রফেশনাল সার্কিটে প্রবেশের পর এ কোর্সে তো এবারই প্রথম হচ্ছে পিজিটিআই টুর্নামেন্ট। প্রথমবারের মতো চিটাগাং ওপেন শুরু হচ্ছে ২৯ মার্চ। ৫০ লাখ টাকা প্রাইজমানির এ টুর্নামেন্ট শেষ হবে ১ এপ্রিল। চিটাগাং ওপেনে দেশি-বিদেশি মিলিয়ে লড়বেন ১২৬ জন গলফার। এর মধ্যে বাংলাদেশের ৫০ জন, বাকিরা ভারত এবং শ্রীলঙ্কার।
সময়টা বেশি ভালো কাটছে না দুটি এশিয়ান ট্যুরজয়ী গলফার সিদ্দিকুরের। বাংলাদেশ ওপেনে হয়েছিলেন রানার্সআপ। তারপর পার্থ, ম্যানিলা আর দিল্লিতে দেখা যায়নি আসল সিদ্দিকুরকে। বুধবার স্থানীয় একটি হোটেলে চিটাগং ওপেনের স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের নাম ঘোষণা অনুষ্ঠানে সিদ্দিকুর রহমান বলেন,‘ এ বছর ৫টা এশিয়ান ট্যুর খেলেছি। কোনোটিতেই তেমন প্রত্যাশা ছিল না। ফল নিয়ে আমি চিন্তিত নই। আমি গেমের টেকনিকে পরির্বতন আনছি। আশা করছি, সামনের দিনগুলো ভালো কাটবে আমার। ভাটিয়ারিতে সর্বশেষ খেলেছি পুরনো কোর্সে। কোর্সটা এখন অনেক সুন্দর ও আধুনিক হয়েছে।’
প্রথমবারের মতো ঢাকার বাইরের বড় টুর্নামেন্টে সাফল্য পেতে আশাবাদী সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘আমি খুব ভালো অনুশীলন করছি। যদি নরমাল খেলাটাও খেলি, তবে ১০ শট এগিয়ে যাবো। যতটুকু সামর্থ্য আছে তাতে সহজে জিতবো বলেই আশা করছি।’

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ