১৬ মার্চ

আপডেট: মার্চ ১৬, ২০২১, ১২:১১ পূর্বাহ্ণ

১৬ মার্চ ১৯৪৮ : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আমতলায় বাংলা ভাষা রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে অনুষ্ঠিত জনসভায় সভাপতিত্ব করেন শেখ মুজিবুর রহমান।
১৬ মার্চ ১৯৭১ : একাত্তরের এই দিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট জেনারেল ইয়াহিয়া খানের বৈঠক হয়। বৈঠকে পাকি প্রেসিডেন্টের সামনে বাঙালিদের ওপর নির্বিচারে গুলিবর্ষণ এবং হত্যাকা-ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব। বঙ্গবন্ধু দ্রুত সামরিক আইন প্রত্যাহার এবং সকল হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িতদের বিচার দাবি করেন। সকাল পৌনে ১১টার দিকে ধানমন্ডির বাসভবন থেকে বঙ্গবন্ধু যখন রাষ্ট্রপতি ভবনের উদ্দেশে রওনা হন, তখন পুরো রাস্তায় মুক্তিপাগল বাঙালিদের স্লোগানে স্লোগানে প্রকম্পিত রাজপথ। পুরো পথেই বাঙালিরা ‘জয় বাংলা’ স্লোগানে মুখরিত রাখে। মাঝে মধ্যে বঙ্গবন্ধুও জয় বাংলা বলে তাঁর কর্মী, সমর্থক ও ভক্তদের অনুপ্রেরণা দেন। তখন বঙ্গবন্ধুর গাড়িতে উড়ছিল কালো পতাকা। বাঙালি হত্যার প্রতীকী প্রতিবাদ হিসেবে সাদা মোটর গাড়িতে কালো পতাকা উড়িয়েই হেয়ার রোডে প্রেসিডেন্ট ভবনে আলোচনার জন্য যান বঙ্গবন্ধু। পাকি প্রেসিডেন্ট নিজেই বঙ্গবন্ধুকে স্বাগত জানান।
১৬ মার্চ ১৯৭১ : মার্চ মাসের ১৬ তারিখ থেকে ২৪ মার্চ পর্যন্ত মুজিব-ইয়াহিয়া বৈঠক হয়। তবে ২১ মার্চ এই বেঠকে যোগ দেন জুলফিকার আলী ভূট্টো। কিন্তু ইয়াহিয়া খান দুই প্রদেশের দুই নেতা শেখ মুজিব এবং জুলফিকার আলী ভূট্টোর মধ্যে আপোষ-মিমাংসা করতে ব্যর্থ হন।
১৬ মার্চ ১৯৭৩ : বঙ্গভবনের সুদৃশ্য দরবার হলে স্বাধীন বাংলাদেশের দ্বিতীয় মন্ত্রীসভা গঠিত হয়। রাষ্ট্রপতি বিচারপতি আবু সাঈদ চৌধুরী প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ২১ সদস্যের মন্ত্রীদের শপথ ও গোপনীয়তা শপথ পাঠ করান।