১৯৫ পুরুষের ওপর যৌন নিপীড়ন চালিয়েছেন তিনি

আপডেট: জানুয়ারি ৮, ২০২০, ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


১৩৬টি ধর্ষণের অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। আর যৌন সংক্রান্ত অপরাধের অভিযোগ ১৫৯টি। আদালত তাকে আখ্যা দিয়েছে ‘ধারাবাহিক দুষ্ট যৌন দানব’ হিসেবে।
সোমবার যুক্তরাজ্যের ম্যানঞ্চেস্টারের একটি আদালত ইন্দোনেশিয়া থেকে আসা শিক্ষার্থী রেইনহার্ড সিঙ্গাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে।
পুলিশ জানিয়েছে, আড়াই বছরে সিঙ্গা অন্তত ১৯৫ জন পুরুষের ওপর যৌন নিপীড়ন চালিয়েছেন। নিজেকে সদয়-সদাচারী হিসেবে উপস্থাপনের পর তিনি এসব লোককে তার ফ্ল্যাটে নিয়ে আসতেন। পরে কৌশলে মাদক খাইয়ে অচেতন করে সিঙ্গা তাদের ওপর যৌন হামলা চালাতেন। ধর্ষণ ও হামলার দৃশ্য নিজের দুই মোবাইল ফোন দিয়ে ধারণ করতেন তিনি। ২০১৭ সালের জুনে তার হামলার শিকার এক ব্যক্তির জ্ঞান ফিরে আসলে তিনি পুলিশে খবর দেন। ওই সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সিঙ্গার হামলার শিকার ৭০ ব্যক্তিকে এখনো চিহ্নিত করতে পারে নি পুলিশ।
উত্তর-পশ্চিমের ডেপুটি ক্রাউন প্রসিকিউটর ইয়ান রাশটন আদালতে বলেছেন, সিঙ্গা হচ্ছেন ‘ব্রিটেনের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক লোককে ধর্ষণকারী’।
সিঙ্গার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাগুলোর মধ্যে প্রথম দুটির শুনানি ২০১৮ ও ২০১৯ সালে শেষ হয়। তার হামলার শিকার ২৫ ব্যক্তির অভিযোগের বিচার শেষে ওই সময় তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়। সোমবার তৃতীয় ও চতুর্থ মামলায় ধর্ষণের শিকার ২৩ জনের অভিযোগের শুনানি শেষে রায় দেওয়া হয়।
রায়ে বিচারক বলেছেন, সিঙ্গার মধ্যে তার করা অপরাধের জন্য বিন্দুমাত্র অনুশোচনা নেই। বরং তিনি বিচারকে উপভোগ করছেন।
তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি