১ মার্চেই হলে প্রবেশ করতে অটল রাবি শিক্ষার্থীরা

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১, ৯:০৭ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিবেদক:


পহেলা মার্চেই হলে প্রবেশ করতে অটল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীরা। লাগাতার কর্মসূচির অংশ হিসেবে সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১ টায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা এই ঘোষণা দেন।
শিক্ষার্থীরা বলেন, আগামীকাল (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সাথে আলোচনায় বসবে। আমরা আশা করছি সেখানে তারা ফেব্রুয়ারির মধ্যে হল খোলার সিদ্ধান্ত নিবে। আমরা ইউজিসির সিদ্ধান্তের ওপর ভিত্তি করে সংবাদ সম্মেলনে আমরা পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করবো। তবে আমরা হলে ঢুকতে বন্ধ পরিকর। প্রয়োজনে হলের সামনে অবস্থান কর্মসূচি করবো।
এসময় খাইরুল ইসলাম দুখু বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমরা ক্যাম্পাসের বাইরে অবস্থান করছি। আর করোনার কারণে আমাদের অর্থনৈতিক অবস্থাও অনেকটা নাজুক হয়ে পড়েছে। ফলে আর আমাদের মেসে থাকা সম্ভব হচ্ছে না। আমরা ক্লাসে ফিরতে চাই।’ তিনি বলেন, ‘যদি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যৌক্তিক কোনো সিদ্ধান্ত না নেয় তাহলে আমরা ২৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করব। সেদিন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের’ স্টিয়ারিং কমিটির নির্বাচন। এজন্য দুই দিন আন্দোলন স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এরপরেও যদি কোনো যৌক্তিক সিদ্ধান্ত না আসে তাহলে ২৫ ফেব্রুয়ারি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আমরা আমাদের ঘোষণা জানিয়ে দিব। তবে ২৮ তারিখের পর আমরা আর চুপ করে থাকবো না। পহেলা মার্চেই যে কোনোভাবে হলে প্রবেশ করবো।’
এর আগে বেলা ১১টায় হল খোলার দাবিতে আন্দোলন শুরু করে শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির পেছনে আন্দোলনকারীরা স্লোগান দিতে শুরু করে। পরে ঘটনাস্থলে প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান এসে পরিবেশ নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করেন। এসময় আন্দোলনকরীরা ২৮ তারিখ পর্যন্ত আল্টিমেটাম দেন। দাবি মেনে না নিলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারিও দেন শিক্ষার্থীরা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ