১ মাস ৮ দিন নিখোঁজের পর কলেজছাত্রী উদ্ধার

আপডেট: মে ৭, ২০২২, ৯:২৬ অপরাহ্ণ

গোমস্তাপুর প্রতিনিধি:


১ মাস ৮ দিন নিখোঁজের পর অবশেষে একাদশ শ্রেণির ছাত্রী (১৯) কে উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (৭ মে) তার পিতার অপহরণ মামলায় ভিকটিম হিসেবে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এরআগে গত শুক্রবার চাঁপাইনবাগঞ্জ ডিবি ডিবি পুলিশের একটি দল তাকে চট্রগ্রামের হাটহাজারী থেকে উদ্ধার করে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোমস্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলীপ কুমার দাস।

জানা গেছে, ওই কলেজ ছাত্রী গত ২৮ মার্চ কলেজের উদ্দেশ্যে বের হয়। এরপর সে বাড়িতে ফিরে আসেনি। অনেক খুঁজাখুঁজি করে তাঁর পরিবার। বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেম নিখোঁজের খবর ভাইরাল হয়। পরে ওই ছাত্রীর পিতা মজিবুর রহমান গোমস্তাপুর থানায় অপহরণের মামলা দায়ের করেন। ঘটনাটি এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি করে।

মামলার আসামি প্রভাষক আব্দুল হান্নান বলেন, জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে ওই মেয়ের পিতার সাথে তাঁদের দ্বন্দ্ব রয়েছে। অথচ মিথ্যা মামলা দিয়ে মোট ১১জনকে হয়রানিমূলক আসামি করা হয়েছে। মেয়েকে দিয়ে নাটক করছেন। বর্তমানে তাঁরা হাইকোর্ট থেকে জামিনে রয়েছেন।

গোমস্তাপুর থানার ওসি দিলীপ কুমার দাস বলেন, উদ্ধারকৃত ওই ছাত্রী প্রাথমিক জিজ্ঞেসাবাদে জানিয়েছেন প্রেমের টানেই সে গৃহ শিক্ষক হুসাইন আলীর (৪০)হাত ধরে অজানার উদ্দেশ্য পাড়ি জমায়। যাওয়ার আগে তিনি বাড়িতে তিনটা চিঠি লিখে যান। নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে সে বাবা-মার সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছে। তাঁর পিতা ঘটনাটি অন্যখাতে প্রবাহিত করতে নিকট আত্মীয়দের বিরুদ্ধে তাঁকে অপহরণের মিথ্যা মামলা দায়ের করে।

তাঁর পিতার দায়ের করা অপহরণ মামলায় ভিকটিম হিসেবে শনিবার তাঁকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এ বিষয়ে আদালত সিদ্ধান্ত নিবে বলে তিনি জানান । উল্লেখ্য, ওই ছাত্রী রহনপুর ইউসুফ আলী সরকারি কলেজের এইচ এসসি ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী। গত ২৮ মার্চ সকালে কলেজের উদ্দেশ্যে বের হয়ে সে নিখোঁজ হয়।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ