২১৯৯ কোটি রুপিতে বিক্রি হলো আইপিএলের স্বত্ব

আপডেট: জুন ২৯, ২০১৭, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


আইপিএলের স্বত্ব কিনতে হাজার কোটি রুপি খরচ করছে ভিভো। ফাইল ছবি

অর্থ উড়ে বেড়ায় আইপিএলের আকাশে-বাতাসেÍএত দিন এমন কথাবার্তা যদি বাড়াবাড়ি মনে হয়ে থাকে, তবে সেটাও দূর হয়ে গেল। গত মঙ্গলবার নিলামে জিতে পাঁচ বছরের জন্য আইপিএলের টাইটেল স্পনসর হয়েছে ভিভো। ক্রিকেটের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগের সঙ্গী হতে প্রায় দুই হাজার দুই শ কোটি রুপি ব্যয় করতে হচ্ছে এই মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানকে। অর্থ তো আসলেই উড়ছে।
অঙ্কটা কত বড় সেটি বোঝাতে একটি তথ্য জানিয়ে দেওয়া যাক। গত দুই মৌসুম ভিভোর সঙ্গেই চুক্তি ছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। এই দুই মৌসুমে স্পনসর হিসেবে বার্ষিক ১০০ কোটি রুপিরও কম খরচ হয়েছে ভিভোর। সেটা নতুন চুক্তিতে বার্ষিক ৪৩৯.৮ কোটি রুপি। অর্থাৎ প্রায় ৪৫৪ শতাংশ আয় বাড়ছে বিসিসিআইয়ের।
অথচ আইপিএলের স্পনসর হতে প্রথম পাঁচ বছর মিলিয়ে মোট ২০০ কোটি রুপি ব্যয় করেছিল ডিএলএফ! বার্ষিক ৪০ কোটি রুপির চুক্তি এখন রূপ নিয়েছে প্রায় ৪৪০ কোটিতে। অর্থাৎ এক দশক পেরোতে না পেরোতেই প্রায় ১১ গুণ দামে বিকোচ্ছে আইপিএল! আইপিএলের শুরুর দিনগুলোতে এমন কিছু ভাবার কথা ভাবতেও পারেনি কেউ।
২০২২ সাল পর্যন্ত আইপিএলের স্বত্বের লড়াইয়ে ভিভোর একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল আরেক মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অপো। কিন্তু তাঁদের দেওয়া প্রস্তাব (১ হাজার ৪৩০ কোটি রুপি) ভিভোর ধারেকাছেও যায়নি। মজার ব্যাপার, ভিভোকে টপকেই ভারতের জাতীয় দলের স্পনসর হয়েছে অপো।-প্রথম আলো অনলাইন