২৯ জুলাই

আপডেট: July 29, 2020, 12:16 am

২৯ জুলাই ১৯৪৬ : বোম্মাই (এখনকার মুম্বাই) শহরে অল ইন্ডিয়া মুসলিম লীগের কাউন্সিল সভা হয়। নেতারা শেখ মুজিবুর রহমানকে ওই সভায় যোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু অর্থের অভাবে তিনি গুরুত্বপূর্ণ ওই সভায় যেতে পারেননি। ওই সভা থেকেই জিন্নাহ ১৬ আগস্ট দিনটিকে ‘ডাইরেক্ট অ্যাকশন’ বা ‘প্রত্যক্ষ সংগ্রাম’ দিবস পালনের আহ্বান জানান। অবশ্যই সেই কর্মসূচি উদযাপন করতে হবে শান্তিপূর্ণভাবে। যদিও কংগ্রেস ও হিন্দু মহাসভার নেতারা এটাকে ভালোভাবে নিতে পারেন নি। জিন্নাহ ব্রিটিশ সরকার ও ক্যাবিনেট মিশনকে এটা দেখাতে চেয়েছিলেন, ভারতবর্ষের ১০ কোটি মুসলমান পাকিস্তান দাবি আদায়ে বদ্ধপরিকর।
২৯ জুলাই ১৯৬৮ : আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার শুনানি পুনরায় শুরু হয়। এসময় স্যার টমাস উইলিয়াম ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন। তিনি ৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর পক্ষে বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট আবেদন দাখিল করেছিলেন।
২৯ জুলাই ১৯৭৫ : আরমানীটোলা ময়দানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পিতা শেখ লুৎফর রহমানের স্মৃতি স্মরণে আয়োজিত ‘শেখ লুৎফর রহমান স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্ট-১৯৭৫’ এর উদ্বোধন করেন তথ্য ও বেতার মন্ত্রী কোরবান আলী। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাকশাল সংসদীয় দলের হুইপ মোহাম্মদ হানিফ এমপি এবং টুর্নামেন্টের পৃষ্ঠপোষক শেখ কামাল।
২৯ জুলাই ১৯৭৫ : বাংলাদেশ দ্বীতিয়বার আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচটি খেলে মারদেকায়। ১৯৭৫ সালে মালয়েশিয়ার বিখ্যাত ফুটবল টুর্নামেন্টে মারদেকা খেলতে যাওয়ার আগে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল গেল গণভবনে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ফুটবলারদের অভ্যর্থনা জানান। দলের সবচেয়ে ছোট খেলোয়াড় আশরাফ উদ্দিন আহমেদ চুন্নুকে দেখে বলেন, ‘এ তো ছোট। কী ফুটবল খেলবে রে…’ শেখ কামাল বঙ্গবন্ধুকে বলেছিলেন, ‘ও ভাল খেলবে আব্বা।’