৩০ জুলাই

আপডেট: July 30, 2020, 12:08 am

৩০ জুলাই ১৯৭২ : লন্ডনে বঙ্গবন্ধুর পিত্তকোষে অস্ত্রোপাচার করা হয়। অপারেশনের পর বঙ্গবন্ধু জেনেভা যান।
৩০ জুলাই ১৯৭৪ : বঙ্গবন্ধুর পরামর্শে তিনটি প্রতিষ্ঠানকে একত্রীকরণের বিল উত্থাপণ করা হয় জাতীয় সংসদে। একই বছরের ৩০ জুলাই জাতীয় সংসদে ওই বিলটি পাস হয়। জাতীয় ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ সংস্থার পরিবর্তে গঠন করা হয় একটি ক্রীড়াপ্রতিষ্ঠান যার নামকরণ করা হয় ‘জাতীয় স্পোর্টস কাউন্সিল’ (এনএসসি)। বাংলাদেশ ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ সংস্থার আহ্বায়ক কাজী আনিসুর রহমানকে সচিব করা হয়। জাতীয় স্পোর্টস কাউন্সিল অ্যাক্ট ১৯৭৪ সাল অনুসারে ১৫০ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়ে শুভ যাত্রা শুরু করে জাতীয় স্পোর্টস কাউন্সিল। কাউন্সিল ও নির্বাহী কমিটি দুই স্তরে পরিচালিত উভয় কমিটির প্রধান ছিলেন চেয়ারম্যান। কাজী আনিসুর রহমান প্রথমে এত গুরু দায়িত্ব গ্রহণে সম্মত ছিলেন না। শর্ত ছিল, তিনি দায়িত্ব পালনের জন্য কোনো অর্থ গ্রহণ করবেন না। একটি স্বায়ত্তশাসিত সরকারি প্রতিষ্ঠানে নিয়োগবিধি অনুযায়ী বিনা বেতনে দায়িত্ব পালন করা যায় না। তাই স্থির হলো কাজী আনিসুর রহমান মাসিক বেতন হিসেবে এক টাকা গ্রহণ করবেন। দায়িত্ব গ্রহণের পর কাজী আনিসুর রহমান মনপ্রাণ উজাড় করে ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়নে ঝাঁপিয়ে পড়লেন। সহযোদ্ধা হিসেবে যাঁদেরকে পাশে পেলেন তাঁর মধ্যে অন্যতম ছিলেন স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের কোচ ননী বসাক, ইংলিশ চ্যানেল বিজয়ী ব্রজেন দাস, শারীরিক শিক্ষা কলেজের সাবেক পরিচালক ফ্লাইট লে. (অব) রুস্তম আলী, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব এম নুরুজ্জামান, কাজী আবদুল আলীম, খান মজলিশ, প্রবীণ ক্রীড়া সাংবাদিক মুহাম্মদ কামরুজ্জামান, বাফুফের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম, ভলিবলের খবির উদ্দিন, জাতীয় পুরষ্কারপ্রাপ্ত হকি তারকা মাহমুদুর রহমান মোমিন, অ্যাথলেটিক্সের সৈয়দ শহীদুল ইসলাম, রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ মানুসহ আরো অনেককে।