৪টি ছাগলের মালিক ইমরান খান! তবে তাক লাগানো সম্পত্তি বুশরা বিবির

আপডেট: জুন ১৮, ২০২২, ১:১১ অপরাহ্ণ


সোনার দেশ ডেস্ক :


মাত্র চারটি ছাগলের মালিক প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান! পাকিস্তানে বা বিদেশে তাঁর কোনও উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগও নেই। তুলনায় ইমরানের স্ত্রী বুশরা বিবির সম্পত্তির পরিমাণ তাক লাগানো। পাক নির্বাচন কমিশনকে উদ্ধৃত করে এমনটাই জানিয়েছেন স্থানীয় সংবাদমাধ্যম।

জানা গিয়েছে, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ এবং তার পূর্বসুরি ইমরান খান, উভয়ের স্ত্রীরাই অর্থসম্পদে তাঁদের স্বামীদের চেয়ে ধনী। পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন স¤প্রতি ২০২০ সালের ৩০ জুন শেষ হওয়া অর্থবর্ষের জন্য সম্পদের বিবরণী প্রকাশ করেছে।

সেখানেই উঠে এসেছে এই তথ্য। পাক দৈনিক ‘ডন’ সূত্রে খবর, পাকিস্তানের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মালিকানায় রয়েছে চারটি ছাগল, যার দাম দু’লক্ষ টাকা। এছাড়া, ইসলামাবাদের বানিগালা এলাকায় একটি বাড়ি রয়েছে তাঁর।

এর পাশাপাশি উত্তরাধিকার সূত্রে ইমরান পেয়েছেন লাহোরের জামান পার্কের বাড়ি এবং ৬০০ একরের কৃষিজমি। কিন্তু পাকিস্তানের বাইরে কোনও গাড়ি বা সম্পদ নেই ইমরানের। তাঁর কোনও বিনিয়োগও নেই।

তবে পাকিস্তানের বৈদেশিক মুদ্রা অ্যাকাউন্টে রাখা ৩ লক্ষ ২৯ হাজার ১৯৬ ডলার এবং ৫১৮ পাউন্ডের মালিক ইমরান। এর বাইরে তাঁর আছে আরও ৬ কোটি টাকা। এদিকে, ইমরানের স্ত্রী বুশরা বিবির মোট সম্পদের পরিমাণ ১৪ কোটি ২০ লক্ষ টাকা। বানিগালায় একটি বাড়ি-সহ আরও চারটি সম্পত্তির মালিক ইমরান ঘরনি।

এদিকে, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের স্ত্রীর সম্পত্তির পরিমাণও তাক লাগানো। পাকিস্তানি মুদ্রায় শরিফের মোট সম্পদের মূল্য প্রায় ১০ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা। দেনা আছে ১৪ কোটি ১০ লক্ষ টাকা। তাঁর সম্পত্তির মধ্যে রয়েছে লাহোর ও শেখুপুরায় ৪৯৫ কানাল (২৫০,৩৯৯ বর্গমিটার) কৃষিজমি এবং লাহোর ও মুরীতে দু’টি বাড়ি।

এছাড়া লন্ডনে শাহবাজের আরেকটি বাসভবনের মূল্য প্রায় ১৩ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা। দেশেও বিনিয়োগ আছে শরিফের। তাঁর মালিকানায় আছে দু’টি গাড়ি। এছাড়াও কয়েক বছর ধরে প্রায় ২ কোটি টাকার ব্যাংক অ্যাকাউন্ট তত্ত¡াবধান করছেন তিনি।

নথিপত্র থেকে জানা গিয়েছে, শাহবাজের প্রথম স্ত্রী নুসরত শাহবাজের সম্পদের পরিমাণ তাঁর স্বামীর চেয়েও বেশি। তবে বুশরা বিবির মতো তারও নিজস্ব কোনও গাড়ি নেই। নুসরত শাহবাজের মোট সম্পদ প্রায় ২৩ কোটি রুপি। ন’টি কৃষিজমি এবং লাহোর ও হাজারা বিভাগে একটি করে বাড়ি আছে তাঁর নামে। এর বাইরেও বিভিন্ন খাতে নুসরতের উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগ রয়েছে।

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের নামে দুর্নীতির মামলা চলছে। একই অভিযোগ রয়েছে প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধেও।

পাকিস্তানে রাজনীতিতে দুর্নীতি ও আর্থিক নয়ছয়ের বিষয়টি কতটা গভীর তার প্রমাণ বহুবার মিলেছে। সেদেশে রাজনীতিবিদের মধ্যে স্ত্রীর নামে বা বেনামে সম্পত্তি রাখার প্রবণতা অত্যন্ত বেশি।
তথ্যসূত্র: সংবাদ প্রতিদিন