৫ মামলায় ১৫ দিনের রিমান্ডে মামুনুল

আপডেট: মে ১২, ২০২১, ৭:৫৯ অপরাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক:


নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানায় করা ধর্ষণসহ মহাসড়কে সহিংসতার পাঁচ মামলায় হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের তিনদিন করে মোট ১৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।
বুধবার (১২ মে) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহমেদ হুমায়ুন কবিরের আদালত এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের ইন্সপেক্টর মো. আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, সোনারগাঁ থানায় ধর্ষণসহ হেফাজতের হরতালে সহিংসতার ঘটনার পাঁচ মামলায় ১৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।
এর আগে কাশিমপুর কারাগার থেকে মামুনুল হককে ভার্চুয়ালি আদালতে যুক্ত করা হয়।
আদালত সূত্র জানায়, হরতালে সহিংসতায় সিদ্ধিরগঞ্জে দুই মামলা, সোনারগাঁ থানায় ধর্ষণসহ ভাঙচুর মামলায় মামুনুল হককে সাতদিন করে ৩৮ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। বুধবার (১২ মে) রিমান্ড শুনানি করে পাঁচ মামলায় ১৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
এর আগের তিন দফা রিমান্ডে সরকার পতনের জন্য ২০১৩ সালের ৫ মের হেফাজতের তা-ব, কওমি মাদরাসার শিক্ষার্থীদের সহিংসতায় ব্যবহার, চুক্তিভিত্তিক দুই নারীর সঙ্গে সম্পর্কসহ সাম্প্রতিক সহিংসতার বিষয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য দেন মামুনুল হক।
এছাড়া দ্বিতীয় দফায় গত ২৬ এপ্রিল পল্টন থানায় করা মামলায় চারদিন ও মতিঝিল থানার মামলায় শুনানি শেষে তিনদিনসহ মোট সাতদিন রিমান্ড মঞ্জুর করেন ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সাদবীর ইয়াছির আহসান চৌধুরীর আদালত।
এর আগে গত ১৯ এপ্রিল মামুনুলকে আদালতে তোলা হয়। আগেই তার বিরুদ্ধে সাতদিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী সাতদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
উল্লেখ্য, গত ১৮ এপ্রিল দুপুরে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসা থেকে হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করে পুলিশ।
তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ