৭০ বছর পর ফের সফর শুরু খুলনা-কলকাতা ট্রেনের

আপডেট: এপ্রিল ৯, ২০১৭, ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

সোনার দেশ ডেস্ক


৭০ বছরের পর ফের চালু হল খুলনা-কলকাতা যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা৷ চলতি বছরের জুলাই মাস থেকে কলকাতা থেকে পেট্রাপোল-বেনাপোল হয়ে খুলনা পর্যন্ত নিয়মিত যাত্রীবাহী ট্রেন চালাবে ভারতীয় রেল৷ শনিবার, যৌথভাবে দিল্লি থেকে ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে এই পরিষেবার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ এছাড়াও এদিন চালু হয় কলকাতা-খুলনা-ঢাকা বাস পরিষেবা৷ নবান্ন থেকে বাস পরিষেবার উদ্বোধন করা হয়৷ এই পরিষেবার মাধ্যমে ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক আরও মজবুত হবে বলে মনে করা হচ্ছে৷
এদিনের ঘোষণার পর এ নিয়ে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে এটি দ্বিতীয় যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা৷ এর আগে ২০০৮ সালের এপ্রিল মাসে চালু হয় কলকাতা-ঢাকা মৈত্রী এক্সপ্রেস৷ তারপরই ট্রেনের সংখ্যা বাড়িয়ে তোলার দাবি জানায় দু’দেশের জনতা৷ উল্লেখ্য, ১৯৪৭ সালে দেশ ভাগের আগে শিয়ালদহ থেকে খুলনা ও যশোর পর্যন্ত নিয়মিত ট্রেন চলত৷ ১৯৭১-এর মুক্তিযুদ্ধের পর স্বাধীনতা পায় বাংলাদেশ৷ তার ৩০ বছর পর ২০০১ সালে পেট্রাপোল-বেনাপোল হয়ে শুরু হয় পণ্যবাহী ট্রেন পরিষেবা৷
প্রসঙ্গত, প্রায় ৭ বছর পর চারদিনের ভারত সফরে শুক্রবার দিল্লি পৌঁছন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ উদ্দেশ্য, দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক মজবুত করা৷ এদিন তিস্তাচুক্তি ও সামরিক সমঝোতা নিয়ে আলোচনায় বসেন দুদেশের প্রধানমন্ত্রী৷ তবে তিস্তাচুক্তি বাস্তবায়িত না হলেও শীঘ্রই এনিয়ে আলোচনার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মোদি৷ এছাড়াও এদিন দু’দেশের মধ্যে অসামরিক পরমাণু চুক্তি-সহ সম্পাদিত হয় ২২টি চুক্তি৷ ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক মজবুত করে এদিন ঢাকাকে ৪.৫ বিলিয়ন ডলারের ঋণও দিয়েছে নয়া দিল্লি ৷- সংবাদ প্রতিদিন